banglanewspaper

স্বামীর কোলে মাথা রেখে মারা গেলো স্ত্রী ক্যাঙ্গারু। এমনই এক হৃদয় বিদারক ঘটনার চিত্র ক্যমেরাবন্দী করেছেন চিত্রগ্রাহক ইভান সুইজার। গণমাধ্যমে এই ছবি প্রকাশিত হবার পর বিশ্বের লাখ লাখ মানুষের হৃদয় ভেঙ্গে গেছে। 

  • পুরুষ ক্যাঙ্গারুটি প্রাণহীন স্ত্রী ক্যাঙ্গারুটির মাথা তুলে ধরে আছে- এই ছবিটি লাখ লাখ মানুষের হৃদয় ভেঙ্গে দিয়েছে।  
  • একজন অস্ট্রেলিয়ান প্রাণি বিশেষজ্ঞ বলছেন, পুরুষ ক্যাঙ্গারুটি দৈহিক মিলনের জন্যই স্ত্রী ক্যাঙ্গারুটিকে জাগানোর চেষ্টা করছিলো।  
  • ড. মার্ক অ্যালড্রিজ বলছেন, প্রকৃত সত্য এটা যে, পুরুষ ক্যাঙ্গারুটি তার স্ত্রী ক্যাঙ্গারুটিকে টেনে তোলার চেষ্টা করছিলো, যেন সে সঙ্গম করতে পারে।  
  • এই ছবির সিরিজটিতে এটাই দেখা যায়, একটি ক্যাঙ্গারু অপর একটি ক্যাঙ্গারুর মাথা তুলে ধরে আছে। একাকি একটি ছোট বাচ্চা এই জোড়াটির পাশে দাঁড়িয়ে রয়েছে।
     

মৃত স্ত্রী ক্যাঙ্গারু কোলের মধ্যে তুলে ধরার ভিন্ন ব্যাখ্যা দিয়েছেন- অস্ট্রেলিয়া জাদুঘরের স্থলজ মেরুদণ্ডী প্রাণি বিষয়ক প্রধান গবেষক ও বিজ্ঞানী ড. মার্ক অ্যাল্ড্রিজ। তিনি বলেছেন, সঙ্গী মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ার কারণে তার মাথা কোলে তুলে নেয়নি। স্ত্রীর সঙ্গে শেষবারের মতো দৈহিক মিলনের জন্যই তার মাথা কোলে তুলে নেয়। ড. অ্যালড্রিজ বলেন, ‘ছবিগুলো অত্যন্ত সুন্দর কিন্ত এটি ‘মৌলিকভাবে অপব্যাখ্যা।’

ভান সুইজার, গত সোমবার সকালে কুইন্সল্যাণ্ডের ফ্রস্টার দ্বীপে নদীর পাশ দিয়ে হেঁটে যাওয়ার সময় ওই ক্যাঙ্গারুটির অন্তিম মুহূর্তের ছবিটি তুলেছিলেন। তিনি বিশ্বাস করেন, পুরুষ ক্যাঙ্গারুটি তার সঙ্গিনীটিকে হারিয়ে শোক প্রকাশ করছিলো। 

ড. অ্যালড্রিজ বলেন, ‘পুরুষ ক্যাঙ্গারুটি নারী ক্যাঙ্গারুটির মাথার ভার বহন করতে পারছিলো না। অন্তিম মুহূর্তে স্ত্রী ক্যাঙ্গারুটি যেন তার বাচ্চাকে দেখতে পায় সেজন্য সে মাথা তুলে ধরেছিলো। প্রকৃত সত্য হচ্ছে দৈহিক মিলন!’

সিডনি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভেটেরিনারি প্যাথোলজি ডিপার্টমেন্টের সিনিয়র প্রভাষক ড. অ্যালড্রিজ পরে দাবি করেন, ‘পুরুষ ক্যাঙ্গারুটি অসুস্থ স্ত্রী ক্যাঙ্গারুটির সঙ্গে সঙ্গম করার চেষ্টা করছিলো। তবে সে এটি ভদ্রভাবে করার চেষ্টা করেনি। তার সঙ্গম করার চেষ্টাই স্ত্রী ক্যাঙ্গারুটিকে অসুস্থ করেছিলো, সে তাকে মেরে ফেলেছে!’

ড. দৃক স্পাইলম্যান বলেন, ‘নারী সঙ্গীর জন্য পুরুষের যে প্রতিযোগিতা, তা তাদের হিংস্র করে তুলেছে। ফলে, দুশ্চরিত্রাদের যুদ্ধ, যা তীব্র লড়াইয়ের জন্ম দিচ্ছে ও নারীদের আহত করছে।’

ট্যাগ: banglanewspaper ক্যাঙ্গারু মিলন