banglanewspaper

শ্রীপুর (গাজীপুর): ডায়রী না আনার কারনে গাজীপুরের শ্রীপুর আবেদ আলী গার্লস স্কুলের কয়েক শিক্ষার্থীকে প্রখর রোদে প্রায় চার ঘন্টা দাড় করিয়ে রাখার অভিযোগ করেছেন অভিভাবকরা।

বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা থেকে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত বিদ্যালয় মাঠে শিক্ষার্থীদের দাড় করিয়ে রাখা হয়। এ ঘটনায় বিদ্যালয় মাঠে কয়েকজন অভিভাবক ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া প্রকাশ করেন। 

শিক্ষার্থীদের অভিভাবক ও তাদের স্বজনদের তথ্যমতে, বৃহস্পতিবার সকালে শিক্ষার্থীরা বিদ্যালয়ে উপস্থিত হলে প্রথম বিষয়ের ক্লাস চলাকালিন সময়ে ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণীর ১৩ জন শিক্ষার্থীকে শ্রেণীকক্ষ থেকে বের করে দেয়া হয়।

এসময় শিক্ষার্থীরা প্রধান শিক্ষকের কক্ষে উপস্থিত হয়ে ক্ষমা প্রার্থনা করলেও প্রধান শিক্ষক তাদের দুপুর দেড়টা পর্যন্ত বিদ্যালয় মাঠে প্রখর রোদে দাড় করিয়ে রাখা হয়। পরে খবর পেয়ে শিক্ষার্থীদের স্বজনরা তাদের বিদ্যালয় থেকে বাড়ি ফিরিয়ে নিয়ে যায়।

বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণীর শিক্ষার্থীর অভিভাবক আমানুল্লাহ জানান, সন্তানতুল্য শিক্ষার্থীদের সাথে প্রধান শিক্ষকের এমন আচরণে অভিভাবকরা হতবাক। অনেকেই বিদ্যালয় থেকে শিক্ষার্থী নিয়ে অন্যত্র ভর্তি করার পরিকল্পনা করছেন।

শিক্ষার্থীদের রোদে দাড় করিয়ে রাখার বিষয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মতিউর রহমান জানান, কিছু শিক্ষার্থীদের ডায়রীর পরিপূর্ণতা না থাকায় তাদের মাঠে দাড় করিয়ে রাখা হয়েছে। তবে দীর্ঘক্ষন নয়, কিছু সময়।

এ বিষয়ে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম জানান, বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের শারীরিক ও মানসিক শাস্তি নিষিদ্ধ থাকার পরও যদি এমন ঘটনা ঘটে থাকে তাহলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ট্যাগ: Banglanewspaper শ্রীপুর প্রধান শিক্ষকের কান্ড