banglanewspaper

বাংলাদেশের বাজারে নতুন চারটি বাইক আনলো জাপানের কাওয়াসাকি। বাইকগুলো আঁকাবাঁকা ও উঁচু-নিচু রাস্তায় অনায়াসে চালানো যাবে। এসব বাইক দেশে বিক্রি ও বাজারজাত করবে এশিয়ান মোটরবাইকস লিমিটেড। 

রাজধানীর গুলশানে কাওয়াসাকির শো-রুমে এই চারটি বাইক বিক্রির ঘোষণা দেয় কাওয়াসাকি ও এশিয়ান মোটরবাইকস লিমিটেড।

আজ বুধবার রাজধানীর গুলশানে কাওয়াসাকির শোরুমে এই চারটি বাইক বিক্রির ঘোষণা দেয়া হয়।

কাওয়াসাকির নতুন চারটি বাইক হলো- কেএলএক্স ১৫০, জেড১২৫, কেএসআর১১০ এবং দ্য ট্রেকার। এর মধ্যে কেএলএক্স ১৫০ অফরোড বাইক। যেটি আঁকাবাঁকা ও উঁচু-নিচু রাস্তায় অনায়াসে চালানো যাবে। বাকি তিনটি স্ট্রিট ও অফরোড বাইকের সমন্বয়ে তৈরি। যেগুলোকে মাল্টিপারপাস বাইক হিসেবে ব্যবহার করা যাবে। 

অনুষ্ঠানে কাওয়াসাকির হেভি ইন্ড্রাস্ট্রিজ লিমিটেডের মোটরসাইকেল অ্যান্ড ইঞ্জিন কোম্পানির সিনিয়র সেলস ম্যানেজার জিন ইনোয় বলেন,‘বাংলাদেশের তরুণদের জন্য স্ট্রিট, অফরোড এবং মাল্টিপারপাস বাইকের সমন্বয়ে চারটি বাইক উন্মুক্ত করা হলো। আশা করা যাচ্ছে এসব বাইক তাদের চাহিদা মেটাবে।’ 

এশিয়ান মোটরবাইকস লিমিটেডের জেনারেল ম্যানেজার রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘শুরুতে আমরা কাওয়াসাকির চারটি বাইক দিয়ে যাত্রা করলাম। আমাদের পরিকল্পনা রয়েছে ভবিষ্যতে কাওয়াসাকির বাইক উৎপাদন এবং সংযোজন বাংলাদেশেই করবো।’

কাওয়াসাকি এখন পর্যন্ত বাইক চারটির দাম ঘোষণা করেনি। আগামীকাল বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হওয়া ঢাকা বাইক শোতে এগুলোর দাম ঘোষণা করা হবে। 

এশিয়ান মোটরবাইকস লিমিটেডের মার্কেটিং এক্সিকিউটিভ আশরাফুল হোসেন জিহান আরটিভি অনলাইনকে বলেন, ২২ থেকে ২৪ মার্চ পর্যন্ত বসুন্ধরা আন্তর্জাতিক কনভেনশন সিটিতে বাইক শো চলবে। প্রতিদিন সকাল সাড়ে ১০টা থেকে রাত সাড়ে আটটা পর্যন্ত চলবে এই আয়োজন। সেখানে বাইকগুলো প্রদর্শন করা হবে। 

ট্যাগ: banglanewspaper বাইক কাওয়াসাকি