banglanewspaper

আবারও সালিশি সভার মাতব্বরি! পরপুরুষের সঙ্গে গৃহবধূর বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক আছে, এই অভিযোগে সালিশি সভা বসিয়ে প্রথমে টাকা আদায়ের চেষ্টা করল গ্রামের 'মাথা'রা। টাকা না মিলতেই তারপর প্রকাশ্য সভায় অর্ধনগ্ন করে তল্লাশি করা হল ওই গৃহবধূর কিশোরী মেয়েকে। ভয়ঙ্কর এই ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের পূর্ব মেদিনীপুরের তমলুকে।

পূর্ব মেদিনীপুরের তমলুকের মানিকখুন্ডি গ্রামের বাসিন্দা অসিত আড়ি। গ্রামের 'মাথা'দের অভিযোগ, অসিতের সঙ্গে নাকি ওই এলাকারই এক গৃহবধূর বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক রয়েছে। এই অভিযোগে গ্রামে সালিশি সভা বসান তাঁরা। বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের অভিযোগে প্রথমে ১০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয় দুই পরিবারকে। কিন্তু দুই পরিবারই সেই টাকা দিতে অস্বীকার করলে, ফের দ্বিতীয়বারের জন্য সালিশি সভা বসানো হয়। এবার আড়াই লাখ টাকা জরিমানা করা হয় দুই পরিবারকে। কিন্তু এবারও টাকা দিতে অস্বীকার করে তারা।

অভিযোগ, তারপরই যৌন হেনস্থা করা হয় ওই গৃহবধূর ১৪ বছরের মেয়েকে। সালিশি সভায় গ্রামের 'মাথা'রা দাবি করেন, ওই গৃহবধূর মেয়ের মোবাইলে তার মায়ের বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের ছবি রয়েছে। সেই 'ছবিপ্রমাণ' জোগাড়ের জন্য প্রকাশ্য সভায় অর্ধনগ্ন করে ওই কিশোরীকে তল্লাশি করেন গ্রামের 'মাথা'রা। এরপরই এই ঘটনায় জয়দেব দাস, তাপস শাসমল, শিবু জানা সহ ১৪ জনের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করেন ওই গৃহবধূ। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

অন্যদিকে, কোনওরকম বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের অভিযোগ সাফ খারিজ করে দিয়েছে দুই পরিবার। তাঁদের সাফ দাবি, দুই পরিবারের মধ্যেই যথেষ্ট সুসম্পর্ক রয়েছে। শুধুমাত্র টাকা আদায়ের লক্ষ্যেই বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের গল্প ফেঁদে বার বার সালিশি সভা বসানো হয়। তাঁদের হেনস্থা করা হয়। প্রায় ৬ মাস ধরে ঘরছাড়া রয়েছে দুই পরিবার।

ট্যাগ: banglanewspaper অর্ধনগ্ন বিবাহ