banglanewspaper

আপনি যদি বলেন, মখুর কাজ কি? এটা খায় না মাথায় দেয়! তবে আমরা বলব, এটা দুটোই করে। শুধুমাত্র আপনার খাবার প্লেটেই নয়, আপনি চাইলে এটি রুপচর্চায় ব্যাবহার করতে পারেন। মধু আপনার ত্বক ও চুলের যত্নে রোজকার রুপচর্চায় জায়গা করে নিতে পারে।

১। মধু যখন ময়েশ্চারাইজ়িং মাস্ক : ত্বক যখন অতিরিক্ত মাত্রাই ড্রাই হয়ে যায় তখন আপনি মুখে মধু লাগাতে পারেন। সুধু ১ চামচ মধু নিয়ে ত্বকে লাগিয়ে নিন। ১৫-২০ মিনিট মধুটা মুখে রেখে হালকা গরম জলে মুখ ধুয়ে নিন।

২। ক্লিনজ়ার হিসাবে মধু : মধু আপনার শরীরে অ্যান্টিব্যাকটেরিয়া হিসেবে কাজ করে। মধু ত্বকের গভীরে গিয়ে ত্বক পরিষ্কার করে থাকে।সুধু তাই নয়, মধু ত্বকের সুস্বাস্থ্য গড়ে তোলে।

৩। ব্রনের ট্রিটমেন্ট উপাদান মধু : মধুর মধ্যে থাকা অ্যান্টিব্যাক্টেরিয়াল ও অ্যান্টিফাঙ্গাল উপাদান আপনার ব্রণের সমস্যা দূর করতে সাহায্য করে থাকে। আপনার মুখে যদি ব্রন থাকে তাহলে ব্রণের উপর মধু ১০-১৫ মিনিট লাগিয়ে রাখতে হবে। তারপর হালকা গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

৪। সান ট্যান : মধুতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি ইনফ্লেমেটরি উপাদান। যা আপনার ত্বকে ট্যান পড়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে দূর করে। এই ট্যান পড়া দূর করতে মধু ও অ্যালোভেরা জেল একসঙ্গে মিশিয়ে নিন। ত্বকে মিশ্রণটি লাগিয়ে কিছু সময় অপেক্ষা করুন, যতক্ষণ না তা শুকিয়ে যাচ্ছে। তারপর হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

৫। চুলের কোমলতা মধু : চুলকে ময়েশ্চারাইজ় করতে আপনি শ্যাম্পুর সঙ্গে মধু মিক্স করে নিন। তারপর চুলে লাগিয়ে কিছু সময় রাখুন তারপর মিশ্রণটি দিয়ে চুল পরিষ্কার করে নিন।চুল ধুয়ে ফেলার পর দেখবেন, আপনার চুল আগের থেকে কেমন কোমল ও ঝলমলে হয়ে গেছে।

৬। হেয়ার কন্ডিশনার : মধু আপনার হেয়ার কন্ডিশনার হিসেবে খুব ভালো কাজ দেয়। যদি পারেন মধু ও নারকেল তেল একসঙ্গে মিশিয়ে নিন। রুক্ষ, শুষ্ক চুলের জন্য এই মিশ্রণটি ভালো কাজ দেয়। মিশ্রণটি ১৫-২০ মিনিট লাগিয়ে রেখে তারপর হালকা গরম পানি দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন।

ট্যাগ: banglanewspaper মধু