banglanewspaper

আজ মার্টিন লুথার কিং-এর পঞ্চাশতম মৃত্যুবার্ষিকী। ১৯৬৮ সালের ৪ এপ্রিল মেমফিসে গুলি করে তাকে করা হয় হত্যা। মৃত্যুর পঞ্চাশ বছর পরও বাবার মৃত্যু তাড়িয়ে বেড়ায় সন্তানদের। 

'আই হ্যাভ এ ড্রিম', শুনলেই মনে পড়ে মার্টিন লুথার কিং-এর কথা। ১৯৬৩ সালের ২৮ মার্চ সমাবেশে কথাটা বলেছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক অধিকার আন্দোলনের এই নেতা।

পঞ্চাশ বছর আগে এক সমাবেশে ভাষণ দেন মার্টিন লুথার কিং। সেটাই ছিল শেষ ভাষণ। পরদিন ৪ এপ্রিল মেমফিসের একটি হোটেলের বারান্দায় গুলিতে মারা যান তিনি। 

মার্টিন লুথার কিং যখন খুন হন তখন ছোট মেয়ে বারনিস কিং-এর বয়স ছিল মাত্র ১০ বছর। বারনিসের মতে, বাবার আদর্শকে আগলে রাখতে তেমন কোনো পদক্ষেপ নেয়নি তার দেশ। 

মার্টিন লুথার কিং এর মেয়ে বারনিস কিং,"আমার মনে হয় না, তার স্বপ্নকে আমরা খুব ভালভাবে আগলে রাখতে পেরেছি। আমরা এখন এমন সময়ে আছি যখন আমাদের ঠিক করতে হবে, রাষ্ট্র হিসেবে কোন বিষয়গুলো আমরা সামনে নিয়ে যাবো। "

মাত্র ৩৯ বছর বয়সে মারা গেলেও, মানুষের হৃদয়ে বেঁচে আছেন এই কিংবদন্তি বিশ্বাস তার সন্তানদের। 
মার্টিন লুথার কিং- এর ছেলে বলেন,"নেতিবাচক ধারণা থেকে বিরত থাকো। এই বার্তা কিভাবে সামনে নিয়ে যাওয়া যায়, সবসময় সেই চেষ্টা করি। কিভাবে আরও মানবিক এবং অহিংস সমাজ গড়ে তোলা যায়। আমরা শিখেছি কিভাবে মানুষের সামনে নয়, আড়ালে কাঁদতে হয়।"

১৯২৯ সালের ১৫ জানুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের জর্জিয়ায় জন্মগ্রহণ করেন মার্টিন লুথার কিং জুনিয়র। আমেরিকার নাগরিক ও মানবাধিকার প্রতিষ্ঠায় অহিংস আন্দোলনের জন্য শান্তিতে নোবেল পুরস্কার পান ১৯৬৪ সালে।

ট্যাগ: banglanewspaper মার্টিন লুথার মৃত্যুবার্ষিকী