banglanewspaper

ঢাবি প্রতিনিধি: ‘নির্বাক শব্দেরা মুখরিত হোক মুক্তির আলোয় আলোয়’ এই স্লোগানকে সামনে রেখে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ২য় বারের মতো ৩দিন ব্যাপী আন্তর্জাতিক মূকাভিনয় উৎসব-২০১৮ শুরু হতে যাচ্ছে।

৮ এপ্রিল রবিবার থেকে মঙ্গলবার পর্যন্ত ৩দিন ব্যাপী এ আয়োজন করবে প্রাচীন শিল্পমাধ্যম মূকাভিনয়কে ধারন ওলালনকরী সংগঠন ঢাকা ইউনিভার্সিটি মাইম অ্যাকসন(ডুমা)।

শনিবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসটি প্রাঙ্গনে সাংবাদিক সমিতিতে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য উপস্থাপন করেন ডুমার প্রতিষ্ঠাকালীন সভাপতি মীর লোকমান।

বর্ণাঢ্য এ উৎসবে অংশ নিচ্ছে জাপান, আমেরিকান নিউ মাইম থিয়েটার, সার্বিয়া, ইরান, জার্মানি, নেপাল এবং ভারতের ২টি দল। এছাড়াও অংশ নেবে বাংলাদেশের মূকাভিনয় চর্চারত ১৫টি দল।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসিতে থাকবে উৎসবের মূল আয়োজন।  এছাড়াও সকাল ১০টায় এবং বিকাল ৪টায় শহীদ মিনার ,কার্জন হল ,কলা ভবন, শাহবাগসহ পুরো ক্যাম্পাস জুড়ে থঠশবে রোড শো। ইতিমধ্যে ১০দিন যাবত পুরো ক্যাম্পাস এবং বিভিন্ন স্কুল, কলেজ ও ঢাকা শহরের গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলোতে বিশেষভাবে সাজানো ট্রাকের মাধ্যমে  রোড শো করা হয়েছে।

আয়োজকরা জানান, গিনেস রেকর্ড সৃষ্টির লক্ষ্যে ৫০০ থেকে ১০০০ মানুষ একসঙ্গে মূকাভিনয় করবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি-তে। সকাল ১১টায় এই গিনেস রেকর্ডে যে কেউ অংশ হতে পারেন। তবে এ জন্য কোন পূর্ব অভিজ্ঞতা লাগবে না। তিন দিনের এই আয়োজনে থাকছে মূকাভিনয়ের ওপর কর্মশালা, সেমিনার, স্কুল ও কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের নিয়ে মূকাভিনয় প্রতিযোগিতা এবং পোস্টার প্রদর্শনী।

এছাড়া অংশগ্রহণকারী সকলকেই  ফ্রি টি-শার্ট, গ্লাভস, মেকআপ এবং অংশগ্রহণ সার্টিফিকেট দেয়া হবে বলে জানানো হয়। অংশগ্রহন করার জন্য প্রাথমিক নিবন্ধন করতে হবে।

আরো জানা গেছে, যে কোন বয়সী ব্যক্তি এই গিনেস রেকর্ড এর জন্য অংশগ্রহন করতে পারবেন। অংশগ্রহণকারী সকলকে কালো প্যান্ট ও কালো কেডস্ বা কনভার্স পরে আসতে হবে। এছাড়া ফ্রি টি-শার্ট, গ্লাভস, মেকআপ দেওয়া হবে। যে কোন প্রয়োজনে ০১৬৮২৯৭৩৫৫১-৫২; ৯১৩৭৬৫৪ তে যোগাযোগ করা যাবে বলে জানানো হয়।

রবিবার সন্ধ্যে ৬:৩০টায় অনুষ্ঠান উদ্বোধন করবেন ঢাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বাংলাদেশ সরকারের যুব ও ক্রীড়া উপ-মন্ত্রী আরিফ খান জয়।

উল্লেখ্য যে, ২০১১ সালের  ২৭ফেব্রুয়ারি “না বলা কথাগুলো  না বলেই  হোক বলা” স্লোগা নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মীর লোকমানের হাত ধরে যাত্রা শুরু করের্ছিল এ মুকাভিনয় সংগঠন ‘ঢাকা ইউনিভার্সিটি মাইম অ্যাকসন। ৭ বছরে সংগঠনটি জাতীয় ও আন্তর্জাতিক মুকাভিনয় আয়োজন সহ দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়, বিভাগ ও জেলা শহরে ৪০০ টির মত মূকাভিনয় প্রদর্শনী করেছে বলে জানানো হয়। তারই ধারাবাহিকতায় এবার২য় বারের মতো আন্তর্জাতিক এই উৎসবের আয়োজন করেছেন তারা।

ট্যাগ: Banglanewspaper গিনেস বুকে রেকর্ড