banglanewspaper

শরীফ আনোয়ারুল হাসান রবীন: মাগুরা পৌরসভার আওতাধিন শহরের প্রাণকেন্দ্রে চৌরঙ্গী মোড়ে অবস্থিত ৩ তলা ২টি ও জুতা পট্টিতে ১ টি পৌর মার্কেট বিগত ৭ বছর আগেই ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে ঘোষনা করা হয়েছে। একাধিকবার দেয়া হয়েছে নোটিশ। কিন্তু তা সত্বেও প্রতিষ্ঠান গুলিতে ব্যাবসায়িরা ঝুকি নিয়েই চালিয়ে আসছেন কার্যক্রম। সাভার ট্রাজেডির মতো কোন বড় দুর্ঘটনার আশংকায় সংশ্লিষ্টরা।

মাগুরা পৌরসভা ১৯৯২ সালে দেড় কোটি টাকা ব্যায়ে শহরের প্রান কেন্দ্র চৌরঙ্গী মোড়ে ৩ তলা ২ টি এবং জুতা পট্টিতে ১টি দ্বিতল বিশিষ্ট পৌর মার্কেট নির্মাণ করেন। এ সকল মার্কেটে দোকান বরাদ্দ নিয়ে প্রায় দুই শতাধিক ব্যাবসায়ী দির্ঘদিন যাবৎ বিভিন্ন ব্যাবসা পরিচালনা করে আসছেন।

কিন্তু এ মার্কেট ৩টি তে শুরুতেই নির্মান ত্রুটি, নিম্ন মানের ইট, বালু, সিমেন্ট এবং রডের ব্যাবহারের কারনে ভবনের মুল আর সি সি পিলার, ছাদ, ও সিড়ির বিভিন্ন স্থানে ব্যাপক ফাটল দেখা দেয়। কয়েক দফা সংষ্কার করলেও ভবনের অধিকাংশ জায়গার প্লাস্টারসহ ছাদের কংক্রিট ভেঙ্গে পড়ে প্রায়ই ছোট বড় দুর্ঘটনার ঘটনা ঘটছে। এতে আহত হয়েছেন দোকান মালিক ও ক্রেতা সাধারন অনেকেই।

ঝুঁকিপূর্ণ এ সকল ভবন গুলির অনস্থান শহরের প্রান কেন্দ্রে ব্যাস্ততম সড়ক ঘেষে হওয়াই যে কোন ধরনের দুর্ঘটনায় সাভার ট্রাজেডির মত এখানেও ব্যাপক প্রানহানিসহ বড় ধরনের ক্ষয়ক্ষরিত আশংকা করছেন স্থানিয় জেলা প্রশাসনসহ সংশ্লিষ্ট সকলেই। 

মাগুরা পৌরসভার নির্বাহী প্রকৌশলী শাইফুল ইসলাম হিরক জানান, তদন্ত পুর্বক পৌর সভার প্রকৌশল বিভাগ হতে পৌর মার্কেট ৩টি ঝুঁকিপূর্ণ ভবন হিসেবে চিহ্নিত করে ৭ বছর আগেই তা ব্যাবহারের অনুপযোগী বলে ঘোষনা করা হয়েছে। সেখানে বসবাস না করার জন্য বারবার নোটিশ প্রদান করা সত্বেও সংশ্লিষ্টরা তা মানছেনা।

সম্প্রতি মাগুরার জনবান্ধব জেলা প্রশাসক, জনাব আতিকুর রহমান, সাভারের রানা প্লাজার ঘটনা স্বরন করে এ সকল ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে বসবাস না করার জন্য ব্যাবসায়ীসহ সকলের প্রতি আহ্বান জানিয়ে এবং ভবনের আস পাশ দিয়ে চলাচলরত সধারন সকল কে সাবধানতা অবলম্বন করে সর্তক থাকার নির্দেশও প্রদান করেছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

ট্যাগ: Banglanewspaper মাগুরা মার্কেট ঝুঁকিপূর্ণ সাভার ট্রাজেডি