banglanewspaper

শাফিউল কায়েস:

" কোটা পদ্ধতি নিপাত যাক,

মেধাবীরা সুযোগ পাক।"

কোটা পদ্ধতির সংস্কার চাই।

 

"বঙ্গবন্ধু'র বাংলায় বৈষম্যের ঠাঁই নেই"

"পিতার কোটা যদি সন্তানেরা পায়!

তবে, জাতির পিতার কোটা কেন

পুরো বাঙালি জাতি পাবে না?"

 

কত স্লোগান? কত মিছিল? দিনের পর দিন আর কত চলবে এভাবে?

স্বাধীনতার দেশে কোটা কেন? কোটা থাক তবে এত কেন?

৫৬% কোটা সরকারি চাকরিতে!আর ৪৪% মেধা কোটা সরকারি চাকরিতে।

কেন এত বৈষম্য! মুক্তি চায় সাধারণ শিক্ষার্থী, অধিকার চায় সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

কেন বেলা শেষে খালি  মেধাবী শিক্ষার্থীদের ঘরে ফিরতে হয়?

উত্তর দিবে কে!

নিজ নিজ অবস্থানে বসে, চেয়ে আছে সকলে। আর রাজপথে নেমেছে অসহায় মেধাবী শিক্ষার্থীরা!

 দিনের পর দিন তারা রাজপথ, মাঠেঘাটে নামছে তাদের অধিকার

ফিরে পাওয়ার আশায়।

আমি কোন সরকার বিরোধী কথা বলছি না।

আর যদি আমার লেখা পড়ে তাই মনে হয় তাহলে, আপনাদের ধারণা ভুল হবে।

আমি অধিকারের কথা বলছি,

আমি সত্যের কথা বলছি।

সাথে বলছি কোটা সংস্কারের কথা। বলছি না কোটা সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ করতে। শুধু আমি নয় বাংলাদেশের সকল মেধাবী শিক্ষার্থী'র ভাষা কোটা সংস্কার হোক।ন্যায্য যারা তারাই শুধু চাকরি পাক।কোটা'র জোড়ে মেধার ন্যায্য পদগুলো যেনো আর পূরণ হোক।

একজন মধ্যবিত্ত পরিবারে শিক্ষার্থী কিভাবে পাড়ি দিয়ে চাকরির জন্য এতদূর পর্যন্ত আসে, হইতো চর্ম চক্ষু দিয়ে না দেখা পর্যন্ত বুঝতে পারা যায় না।আবার যখন ব্যর্থতা'র ছাপ নিয়ে ঘরে ফিরতে হয়,তখন কেমনটা লাগে  সেই শিক্ষার্থী বোঝে।

ঘরে মা,অসুস্থ।বোনের বিবাহ নিয়ে চিন্তিত,বাব নেই অনেক আগেই না ফেরার দেশে চলে গেছে। 

পকেটে নাই টাকা,তবুও চাকরির সন্ধানে ছুটে, বারবার ভাইয়া বোর্ড থেকে মুখে কালো মেঘের ছাপ নিয়ে ঘরে ফিরতে হয়।

কিন্তু কেন?

সেই ছেলেটা চাকরি পাওয়ার জন্য উপযুক্ত ছিলো, তার পরের 

সময়ের নির্মমতায় বারবার ব্যর্থতার শিকার হয়ে তাকে ঘরে ফিরতে হয়।।

 

অতঃপর, বলতে চাই কোটা সংস্কার হোক

               মেধাবীদের হোক সুযোগ। 

(এ বিভাগে প্রকাশিত মতামত লেখকের নিজস্ব। বাংলাদেশ নিউজ আওয়ার-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে প্রকাশিত মতামত সামঞ্জস্যপূর্ণ নাও হতে পারে।)

ট্যাগ: Banglanewspaper বাস্তব মঞ্চ কোটা পদ্ধতি সংস্কার