banglanewspaper

সিরিয়া সঙ্কট নিয়ে মার্কিন ভারপ্রাপ্ত পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন সুলিভানের সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলেছেন ইরাকের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইব্রাহিম আল-জাফারি।

ফোনালাপে জাফারি বলেছেন, সিরিয়ার ওপর নতুন যে কোনো আগ্রাসন মধ্যপ্রাচ্যের জন্য ভয়াবহ বিপদ ডেকে আনবে। 

তিনি বলেন, এ ধরনের আগ্রাসন মধ্যপ্রাচ্য অঞ্চলের নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতা বিনষ্ট করবে এবং সন্ত্রাসীদেরকে নতুন করে মাথাচাড়া দিয়ে ওঠার সুযোগ দেবে।

সিরিয়া সংকটের রাজনৈতিক সমাধানের ওপর গুরুত্ব দিয়ে জাফারি বলেন, সিরিয়ার জনগণকেই তাদের ভাগ্য নির্ধারণের সুযোগ দিতে হবে। এ সময় তিনি রাসায়নিক অস্ত্রের উৎপাদন ও ব্যবহারের বিরুদ্ধে বাগদাদের অবস্থান তুলে ধরেন। 

তিনি বলেন, ইরাকের জনগণ মারাত্মকভাবে এই অস্ত্রের শিকার।

জাফারি বলেন, সন্ত্রাসবাদের হুমকি বিশ্বের সব দেশকে আতঙ্কিত করে তুলেছে। এ অবস্থায় যুদ্ধের চেয়ে শান্তির পথ অনুসরণ করা বেশি গুরুত্বপূর্ণ।

ফোনালাপে মার্কিন ভারপ্রাপ্ত পররাষ্ট্রমন্ত্রী দাবি করেন, গত শনিবার আমেরিকা, ব্রিটেন ও ফ্রান্স সিরিয়ার তিনটি রাসায়নিক স্থাপনার ওপর ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে। তিনি আরো দাবি করেন, এসব হামলায় আমেরিকা বেসামরিক ক্ষয়ক্ষতির বিষয়টি এড়ানোর চেষ্টা করেছে।

উল্লেখ্য, গত সপ্তাহে দৌমা শহরে সন্দেহজনক রাসায়নিক হামলা চালায় সিরিয়া। এতে বেশ কয়েকজন নিহত হয়। এর জবাবেই যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্ররা শনিবার (১৪ এপ্রিল) সকালে এ হামলা চালায়।

ট্যাগ: banglanewspaper সিরিয়া