banglanewspaper

ডেস্ক রিপোর্ট: টেলিভিশনে নারী সঙ্গীতশিল্পীকে পরিবেশনায় দেখালেও কণ্ঠ ভেসে আসছিল একজন পুরুষের-উল্টাপাল্টা সম্প্রচারের এই দশা সংসদ টেলিভিশনে দেখা গেছে ঢাকার একটি এলাকা থেকে।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় মিরপুর-১২ নম্বর সেকশনে দুই ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে রাষ্ট্রায়ত্ত টেলিভিশনের সম্প্রচারে এই হ-য-ব-র-ল অবস্থা দেখা যায়।

সংসদ টিভির দায়িত্বশীল একজন কর্মকর্তা এই সমস্যার জন্য স্থানীয় কেবল অপারেটরকে দায়ী করেছেন।

সন্ধ্যা ৬টা ২৫ মিনিটে নারী সঙ্গীতশিল্পীর গানে পুরুষ শিল্পীর কণ্ঠ আসার কিছুক্ষণ পর শোনা যায় মাগরিবের আজান, যদিও পর্দায় ওই শিল্পীই ছিলেন।

পরে টেলিভিশনে মাগরিবের আজান দেখানোর সময় একজন উপস্থাপিকার ঘোষণা শোনা যায়, ‘বাংলাদেশ বেতারের ট্রাফিক সম্প্রচার কার্যক্রম এফ এম ৮৮.৮। প্রিয় বন্ধুরা, এখন আপনারা শুনবেন ভক্তিমূলক গান।'

এরপর শোনা যায় গানের আল্পনা অনুষ্ঠানটি, যেখানে জেমসের গান ভেসে আসে। রুমী আজনবীর গান টেলিভিশনে দেখালেও শোনা যায় জেমসের ‘ও বিজলী চলে যেও না’ গানটি। এভাবেই চলতে থাকে প্রায় দেড় ঘণ্টা। পরে টেলিভিশনে টকশো দেখালেও শোনা যায় জেমসের আরও একটি গান।

সংসদ টেলিভিশন এ রকম প্রায়ই হয়ে থাকে বলে জানান মিরপুর ১২ নম্বরের গৃহিনী সাহানা কাদের। তিনি বলেন, “প্রায়ই এমন দেখা যায় যে, ভিডিওর সাথে অডিওর কোনো মিল নেই। একটা সরকারি টেলিভিশন চ্যানেলে কেন এমন হবে? গোলযোগ হলে দু-এক মিনিট হতে পারে। কিন্তু ঘণ্টার পর ঘণ্টা এ রকম চলতে থাকবে?

“প্রাইভেট কোনো চ্যানেলে তো এ সমস্যাটা হয় না। এই দোষটা তো সংসদ টেলিভিশনকেই নিতে হবে।”

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সংসদ টেলিভিশনের পরিচালক এস এম মঞ্জুর প্রশ্ন করেন, “এটি কোথায়? এর অবস্থান (সম্প্রচারে গোলযোগ) কোথায়?”

কেন এ সমস্যা হচ্ছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, “কেবল অপারেটরদের ফ্রিকোয়েন্সির একটা সমস্যা এটা। মাঝে মাঝে শোনা যায়, আমরা ইয়ে করলে এটি ঠিক হয়ে যায়। এখন এই যে শুনলাম আর কী। এখন দেখব।”

তিনি বলেন, “এটা সব জায়গায় হয় না। কেবল অপারেটরদের ইসে থেকে হয়। আমি তো ইঞ্জিনিয়ার না, এ তো ব্যাখ্যা করে বলতে পারব না।”

বিডিনিউজ

ট্যাগ: Banglanewspaper বিটিভি অবাক দর্শক