banglanewspaper

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সংসদের মত একটা গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় দাঁড়িয়ে ঘোষণা দিলেন ‘কোটা বাতিল করা হবে’। একজন প্রধানমন্ত্রী মানে হচ্ছে একটা দেশের সর্বোচ্চ অভিভাবক।

তিনি যখন একটা সিদ্ধান্ত নেন তখন অনেক ভেবে চিন্তে এবং দেশের মানুষের কল্যাণের কথা ভেবে চিন্তে নেন। আর কোটা সংস্কারের ব্যাপারটা হচ্ছে এখানে দেশের ৯৫% মানুষের ভাগ্য নির্ধারণের মত। প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণার পরে আমরা সাধারণ শিক্ষার্থীরা ঘরে ফিরে এসেছি কিন্তু একদল স্বার্থান্বেষী আমাদের পিছনে বুনো হায়েনার মত পড়ে আছে।

আমাদের গুম করে দেবে, খেয়ে দেবে, দেখা মাত্রই পিটিয়ে মেরে ফেলবে আসলে এরা কারা? জাতি এখন জানতে চায় এই মুখোশধারীরা কারা? আবার মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কোটা বাতিলের ঘোষণার পর আরেক দল তার বিরুদ্ধে গিয়ে আন্দোলনের ঘোষণা দিয়েছে। কারণ স্বরূপ বলা হচ্ছে যে কোটা তাদের অধিকার কোটা বাতিল হলে তাদেরকে অপমান করা হবে।

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ও এ ব্যাপারে তাদের সাথে একাত্বতা ঘোষণা করেছে। এখন একটাই প্রশ্ন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আপনি এখন চাইলে ঠিকই অনুপ্রবেশকারী বেছে বেছে বের করতে পারবেন।

আমরা দেশের সাধারণ জনগণ আপনাকে মায়ের মত সম্মান করি এবং আপনার কথামত সবাই পড়ার টেবিলে ফিরে আসছি কিন্তু আমাদের কে খোঁচানো হচ্ছে, চোখ বেধে তুলে নেওয়া হচ্ছে, প্রাণনাশের হুমকি দেওয়া হচ্ছে। এর প্রধান কারণ কি জানেন? প্রধান কারণ হচ্ছে যাতে আমরা আপনার বাধ্য সন্তানেরা অবাধ্য হয়ে যাই। দিন শেষে সন্তানেরা মায়ের কাছেই বিচার দেয় ওই সব অমানুষদের বিচার আপনার কাছেই দিলাম।

আমাদের জীবনের কোন নিরাপত্তা নাই; নাই কোন আশা ভরসাও। আমরা সাধারণ শিক্ষার্থী আমরা কোন দল বুঝি না। আমরা শুধু বুঝি গণতান্ত্রিক দেশে জন্ম নেওয়া নাগরিকের গণতান্ত্রিক অধিকার থাকে। আমাদের শুধু সেই অধিকার ফিরিয়ে দেওয়া হোক। ষড়যন্ত্র করে লাভ নাই।

ষড়যন্ত্রকারীরা নিজেদের পাতানো ফাঁদে নিজেরাই পা দিচ্ছে। ‘তেলাপোকা এখনো টিকে আছে কিন্তু ডাইনোসর অনেক আগেই বিলুপ্তি হয়ে গেছে। তাই মিথ্যা ট্যাগ লাগিয়ে আমাদেরকে আর দমানো যাবে না।’

লেখক

লুৎফুন্নাহার লুমা (নীলা)

কোটা সংস্কার সক্রিয় আন্দোলনকারী।

(এ বিভাগে প্রকাশিত মতামত লেখকের নিজস্ব। বাংলাদেশ নিউজ আওয়ার-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে প্রকাশিত মতামত সামঞ্জস্যপূর্ণ নাও হতে পারে।)

ট্যাগ: Banglanewspaper তেলাপোকা ডাইনোসর