banglanewspaper

সিলেট প্রতিনিধি : অবিশ্বাস্য হলেও সত্য। মাত্র ২৫ হাজার টাকার বিনিময়ে গোল্ডেন (সব বিষয়ে) জিপিএ ৫ এবং সাড়ে ১২ হাজার টাকায় জিপিএ ৫ পাওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে প্রতারণা করা একটি চক্রের সদস্যরা গ্রেপ্তার হয়েছেন।

মঙ্গলবার (১৭ এপ্রিল) রাত সাড়ে ১১টার দিকে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলার বিরাইমপুর এলাকা থেকে এই প্রতারক চক্রের চার সদস্যকে গ্রেপ্তার করে র‍্যাব-৯-এর সদস্যরা।

গ্রেপ্তার হওয়া ব্যক্তিরা হলেন- শ্রীমঙ্গলের বিরাইপুর গ্রামের মো. শওকত হোসেন, মো. সৌরভ হোসেন, শ্যামলী গ্রামের মো. আব্দুল কাদির ও হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার শেরপুর গ্রামের মো. হৃদয় মিয়া।

বুধবার (১৮ এপ্রিল) দুপুর ১টার দিকে সিলেটে আটকদের নিয়ে এক সংবাদ সম্মেলন করেন র‌্যাব-৯ এর অধিনায়ক লেফটেনেন্ট কর্নেল আলী হায়দার আজাদ।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, আটক এই চার যুবক গত এসএসসি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস করে এবং চলতি এইচএসসি পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁসের চেষ্টা চালিয়েছিলো। প্রশ্নপত্র কেনাবেচায় তারা সিলেট কেন্দ্রীক নেটওয়ার্ক গড়ে তুলে। বিভিন্ন জনকে প্রস্তাব দেয় প্রশ্নপত্র কেনার। তাদের ব্যবহৃত ওয়েবসাইড নিবিড় পর্যবেক্ষণের পর বেরিয়ে আসে এমন তথ্য। এরই প্রেক্ষিতে মঙ্গলবার (১৭ এপ্রিল) দিনগত রাত ১১টায় র‌্যাব-৯ শ্রীমঙ্গল ক্যাম্পের একটি বিশেষ দল চক্রের চার সদস্যকে আটক করে।

র‍্যাব কর্মকর্তা বলেন, বয়স কম হলেও তথ্য-প্রযুক্তির দিক থেকে যথেষ্ট জ্ঞান রয়েছে শওকতের। যদিও সে নিজেই মাধ্যমিকের গন্ডি পেরোতে পারেনি। তার বাবা পেশায় দারোয়ানের চাকরি করেন। সে দিনভর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পড়ে থেকে এসব করতে শিখেছে। এমনকি বাংলাদেশের অফিসিয়াল সাইডও হ্যাক ছাড়াও সহস্রাধিক ফেসবুক আইড হ্যাক করে নিজে জয়েন্ট করেছে। এভাবে প্রশ্ন ফাঁসকারী গ্রুপের সঙ্গে সম্পর্ক তৈরি করে সে।

চক্রটি গোল্ডেন জিপিএ ৫, ২৫ হাজার টাকায় ও জিপিএ ৫ সাড়ে ১২ হাজার টাকায় পাইয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে প্রতারণা করছিল বলেও সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়।

এই চক্রের সদস্যদের ফেসবুক আইডি তদন্ত করে অনেক পরীক্ষার্থীর সার্টিফিকেট ও মার্কশিটের কপি পাওয়া গেছে বলেও জানান আলী হায়দার আজাদ আহমদ। এ ছাড়াও তাদের মোবাইলে প্রশ্নপত্র ও প্রশ্নপত্রের বিনিময়ে টাকা আদান-প্রদানের প্রমাণও পাওয়া গেছে।

ট্যাগ: banglanewspaper জিপিএ র‍্যাব