banglanewspaper

এই মুহূর্তে তারেক রহমান বাংলাদেশের নাগরিক নন বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের সংবিধানে নাগরিকত্বের সঙ্গে পাসপোর্টের কোনও সম্পর্ক নেই। তবে, দেশের বাইরে গেলে নিজ দেশের পাসপোর্টই নাগরিকত্বের মূল দলিল হিসেবে যেহেতু বিবেচিত হয়; সেহেতু ব্রিটেনে আশ্রয়রত দণ্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামি তারেক রহমান ব্রিটেন সরকারের কাছে তার নিজ দেশের পাসপোর্ট সারেন্ডার করে পলিটিক্যাল অ্যাসাইলাম (রাজনৈতিক আশ্রয়) চেয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (২৬ এপ্রিল) দুপুরে সচিবালয়ে আইন মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে জাতীয় আইনগত সহায়তা দিবস উপলক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ব্রিটেন সরকার তাকে পলিটিক্যাল অ্যাসাইলাম দিয়েছে কিনা, সেটি আমি জানি না। তবে, যেহেতু তিনি পাসপোর্ট সারেন্ডার করেছেন, সেহেতু তিনি আর এই মুহূর্তে বাংলাদেশের নাগরিক নন। তবে, আগামীতে তিনি যে বাংলাদেশের নাগরিকত্ব পাবেন না বা হবেন না; সেটিও চূড়ান্ত নয়।’

যতক্ষণ পর্যন্ত তিনি বাংলাদেশের পাসপোর্টে ছিলেন ততক্ষণ পর্যন্ত তার পরিচয় ছিল বাংলাদেশের একজন নাগরিক। যেখানে তিনি স্বেচ্ছায় বলছেন, আমি আমার বাংলাদেশি পাসপোর্টটা সারেন্ডার করে দিলাম। তখন কি বলা যাবে তিনি বাংলাদেশের নাগরিকত্ব রেখে দিয়েছেন?’

তিনি আরও বলেন,  যদিও এ মুহূর্তে ব্রিটেনের সঙ্গে বাংলাদেশের বন্দি বিনিময় চুক্তি করা নাই। তবে এ চুক্তি করতে কোনো বাধাও নাই।
আইনমন্ত্রী সবাইকে তারেক রহমানের বক্তব্য প্রচারের ক্ষেত্রে উচ্চ আদালতের নির্দেশ অনুসরণ করার অনুরোধ করেন।

এসময় আইন মন্ত্রণালয়ের সচিব আবু সালেহ শেখ মো. জহিরুল হক উপস্থিত ছিলেন।

ট্যাগ: banglanewspaper আইনমন্ত্রী