banglanewspaper

নিজস্ব প্রতিবেদক: ছাত্রলীগের ২৯তম জাতীয় সম্মেলনকে সফল করতে সম্মেলনস্থল রাজধানীর ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে খণ্ড খণ্ড মিছিলে সজ্জিত হয়ে ঝাঁকে ঝাঁকে আসতে শুরু করেছেন দেশের বিভিন্ন ইউনিটের নেতাকর্মীরা। তবে মূল সম্মেলন বিকাল সাড়ে ৩টায় শুরু হওয়ার কথা থাকলেও এর আগেই সম্মেলন ময়দান পূর্ণ হয়েছে।

জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন এবং জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশনার মাধ্যমে সম্মেলন শুরু হবে। উদ্বোধনী বক্তৃতা দেবেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা। 

সম্মেলনস্থলে ৫০ হাজার নেতা-কর্মীর বসার ব্যবস্থা করা হয়েছে। ঝড় বৃষ্টি মাথায় রেখেই মূল মঞ্চসহ সর্ব সাধারণের বসার স্থান ত্রিপল দিয়ে ঢেকে দেওয়া হয়েছে। নিরাপত্তার জন্য প্রতিটি গেটে নিরাপত্তা বাহিনীর পাশাপাশি ছাত্রলীগের স্বেচ্ছাসেবী কর্মীও থাকছেন। 

প্রতি বছরের মতো এবারও সম্মেলনের প্রথম দিনের প্রথম পর্বে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নতুন নেতৃত্ব গঠনে কিছু নির্দেশনা দিয়ে যাবেন। সম্মেলনে বর্তমান সভাপতি মো. সাইফুর রহমান সোহাগ ও সাধারণ সম্পাদক এসএম জাকির হোসাইনের কমিটির বিলুপ্তি ঘোষণা করা হবে। এবার ছাত্রলীগ নেতাদের বয়সের ক্ষেত্রে তিন ক্যাটাগরিতে ফরম বাছাই করে রাখা হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে ২৭ বছর, ২৯ বছর এবং ২৯ ঊর্ধ্ব বয়সী। 

সন্ধ্যায় কনসার্টের আয়োজন করা হয়েছে। কনসার্টে আওয়ামী লীগ দলীয় সংসদ সদস্য ও কণ্ঠশিল্পী মমতাজ বেগম ও নগরবাউল খ্যাত জেমস সংগীত পরিবেশন করবেন।

এর আগে ৭ মে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থীদের মনোনয়নপত্র জমা নেওয়ার কার্যক্রম সম্পন্ন হয়েছে। গত ২-৫ মে পর্যন্ত মনোনয়নপত্র বিক্রি করা হয়। জাতীয় সম্মেলন উপলক্ষে গঠিত তিন সদস্যবিশিষ্ট নির্বাচন কমিশন জমা হওয়া মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই করছে। সভাপতি পদের জন্য ১২৫ জন এবং সাধারণ সম্পাদক পদের জন্য ২০০ জন ফরম তুলেছেন।

ট্যাগ: banglanewspaper ছাত্রলীগের সম্মেলন