banglanewspaper

আলফাজ সরকার আকাশ, শ্রীপুর (গাজীপুর): গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার ধনুয়া নগরহাওলা বাউল মার্কেট এলাকায় গলায় ফাঁস দিয়ে সেকান্দর আলী (৪০) নামে এক যুবক রহস্যজনক আত্মহত্যার খবর পাওয়া গেছে।

১১মে শুক্রবার সকালে নিজ বাসা পূর্বপাশে দোকানের আড়ার সাথে গামছা দিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে সে আতœহত্যা করেছে বলে পরিবারের অভিযোগ। নিহত সেকান্দর আলী চট্রগাম জেলার কর্ণফুলী উপজেলার কর্ণফুলী গ্রামের মৃত রাজা মিয়ার ছেলে, সে কিছুদিন যাবৎ চা দোকান ব্যবসা করছিলেন।

সেকান্দর আলীর স্ত্রী সালেহা বলেন,প্রতিদিনের মতই ওই দিনও বাজার থেকে  এসে দোকান বন্ধ করার পর এক সাথে খাওয়া দাওয়া করেছে,খাওয়া শেষ করে সাড়ে ১০টার দিকে ঘুমিয়ে পরি সবাই। সকালে কাদে গামছা নিয়ে বাড়ির বাইরে যায়। সকালের খাবার খেতে আসা দেরি দেখে আমি অনেক খোঁজা খোঁজি করার পর কোথা পাওয়া যায়নি।

একপর্যায়ে দোকানের ভিতরে দেখি ঝুলছে, চিৎকারে আশপাশের মানুষজন আসে দোকান খোলে তার পর দেখি আমার স্বামী দোকানের উপরে থাকা বাঁশের সাথে গামছা দিয়ে গলায় ঝুলে রয়েছে। 

২নং গাজীপুর ইউপিঃ সদস্য আব্দুল আজিজ বলেন, সেকান্দর আলী দীর্ঘ দিন আগে আমাদের এলাকায় চাঁন মোহাম্মদ টনির বাড়িতে ভাড়া থেকে চাকরী করতেন,ইদানিং উপজেলার আবদার গ্রামের আব্দুল আউয়াল মিয়ার ছেলে আশরাফুলে দোকান ভাড়া নিয়ে চা দোকান করতেছে। পারিবারিক কোনো প্রকার কোন্দল নেই,স্বামী স্ত্রীর মধ্যেও ভালো ছিলো,কখনো কোনো ধরনের ঝগড়া ফেছাদ করতো না। 

শ্রীপুর থানার (এস আই) মাহামুদুল হাসান জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্ত করার জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহম্মেদ মেডিকেল কলেজ হসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। পারিবারিক সুত্রে সেকান্দর আলী আত্মহত্যার কারন জানাযায়নি,পরিবারের কারো কোনো অভিযোগ না থাকলে থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা দায়ের করা হবে

রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় কোনো লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়নি।

ট্যাগ: Banglanewspaper শ্রীপুর