banglanewspaper

যবিপ্রবি প্রতিনিধি : দরিদ্র দুরারোগ্য শিশু এবং দুর্যোগ কবলিত মানুষের সাহায্য সহযোগীতার  সংগঠনের একক নাম যবিপ্রবির সহায়ক নামক সংগঠন।

সংগঠনটি যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সোস্যাল সার্ভিস ক্লাবের অধীনে পরিচালিত একটি সক্রিয় শাখা। সুবিধাবঞ্চিত দরিদ্র শিশুদের সাহায্য সহযোগীতা করা হয় সংগঠনটি থেকে।

যবিপ্রবির সোস্যাল সার্ভিস ক্লাবের যাত্রা শুরু হয় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিঠ্বালগ্ন থেকেই। শুরুর দিকে সংগঠনটির তৎপরতা শীর্ষে থাকলেও বর্তামানে তা কিছুটা মন্থর গতিতেই চলছে,সম্প্রতি যবিপ্রবির একদল তরুন উদ্যমী শিক্ষার্থীদের দ্বারা সহায়ক নামের সংগঠনটি পরিচালিত হচ্ছে।

সংগঠনের সকল কার্যাবলী নিয়ন্ত্রিত হবে যবিপ্রবির উপাচার্য প্রফেসর ড. আনোয়ার হোসেনের নির্দেশনা অনুযায়ী।সার্বিক পরিচালনায় থাকবেন ছাত্রপরামর্শ ও নির্দেশনা বিভাগের পরিচালক ড. মীর মোশাররফ হোসেন আরও অন্যান্য শিক্ষকমন্ডলী।

সহায়কের শুরুর দিকে সংগঠনটির সদস্যরা একজন দরিদ্র দুরারোগ্য শিশু আলামিনের সাহায্য করার জন্য সিদ্ধান্ত নেয়। আলামিন জন্মগতভাবেই হৃদরোগে আক্রান্ত,তার বয়স এখন ছয় বছর।আগামী ৫ ই জুনের মধ্য তাকে হার্টের বড় ধরনের অপারেশন করতে হবে যার জন্য অনেক টাকার দরকার যা তার পরিবারের ক্ষেত্রে বহন করা প্রায় অসম্ভব। তারই ধরাবাহিকতায় শিক্ষার্থীরা  যবিপ্রবি ক্যাম্পাসে শিক্ষার্থীরা সাহায্য সহযোগীতা তোলে।

সংগঠনের একজন সক্রিয় সদস্য সাদেক বাচ্চু জানান, "আলামিনের হার্টে জন্মগতভাবেই ছিদ্র ছিলো বলে জানিয়েছেন ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশনের ডাক্তাররা তারা আরও জানিয়েছেন,  জুন মাসের ৫ তারিখ এর মধ্যে ওর অপারেশন করাতে হবে নতুবা ওকে বাচানো সম্ভব নয়। সকলের কাছে আমার অনুরোধ সবাই যেন তার নিজ নিজ স্থান থেকে এগিয়ে আসে আলামিনের জন্য।আর সবাই যেন সবসময় সহায়ক সংগঠনের পাশে থাকে, তাহলে আমরা আলামিনের মত হাজারো শিশুর পাশে দাড়াতে পারব।"

ট্যাগ: banglanewspaper যবিপ্রবি