banglanewspaper

কোটা বাতিলের প্রজ্ঞাপনের জারির দাবিতে পূর্বঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অবরোধ কর্মসূচি পালন করছে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা।
 
সোমবার (১৪ মে) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্রন্থাগারের সামনে থেকে বেলা ১১ টায় একটি বিশাল মিছিল বের করে। আন্দোলনকারীরা কলাভবনের প্রধান ফটক বন্ধ করে দেয় এবং সেখানে তারা কিছুক্ষণ অবস্থান করে স্লোগান দিতে থাকে।
 
কোটা সংস্কার আন্দোলনের যুগ্ম আহ্বায়ক নুরুল হক নুর বলেন, সারা বাংলার ছাত্রসমাজ আজ একতাবদ্ধ। তারা তাদের অধিকার নিয়ে রাজপথে। ছাত্রসমাজ কখনও ব্যর্থ হতে পারে না। প্রজ্ঞাপন না নিয়ে তারা ঘরে ফিরবে না।  

আন্দোলনের আহ্বায়ক মামুন বলেন, আমাদেরকে বারবার আশ্বাস দেয়া হয়েছিল ৭ মে’র মধ্যে প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে। কিন্তু দুঃখের বিষয় হলেও সত্য, ৭ মে পেরিয়ে গেলেও প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়নি। আর প্রজ্ঞাপন জারি না করায় আজকে ছাত্রসমাজ আবার রাজপথে নেমেছে।
 
এদিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগসহ আরো কয়েকটি বিভাগ ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করেছে। এই মুহূর্তে ঢাবি ক্যাম্পাসে মিছিল করছেন আন্দোলনকারীরা।

গত ৮ এপ্রিল থেকে টানা পাঁচ দিন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ দেশের প্রায় সব পাবলিক ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলন করেন শিক্ষার্থীরা। ১২ এপ্রিল জাতীয় সংসদের অধিবেশনে কোটা পদ্ধতি বাতিল ঘোষণা করে সব চাকরিতে শতভাগ মেধার ভিত্তিতে নিয়োগের ঘোষণা দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তবে সোমবার বেলা ১১টা পর্যন্ত এখনো এ বিষয়ে কোনো প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়নি।

এই প্রজ্ঞাপনের দাবিতেই এখন আন্দোলন করছেন শিক্ষার্থীরা।

সর্বশেষ ১০ মে সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে নপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মো. মোজাম্মেল হক খান জানান, কোটা সংস্কার বা বাতিলের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে মন্ত্রিপরিষদ সচিবের নেতৃত্বে কমিটি গঠনের প্রস্তাব প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে পাঠানো হয়েছে।

ট্যাগ: banglanewspaper কোটা