banglanewspaper

শরীফ আনোয়ারুল হাসান রবীন : মাগুরার মহম্মদপুরের নহাটা পানিঘাটা গ্রামের পানিঘাটা হাফেজি মাদ্রাসার প্রধান ওস্তাদ হাফেজ আলাউদ্দিন (৩০) কে মাদ্রাসার ৩ শিক্ষার্থীকে বলাৎকারের অভিযোগে আটক করা হয়েছে। স্থানীয়রা তাকে হাতেনাতে ধরে পুলিশের হাতে তুলে দেয়। অভিযুক্ত আলাউদ্দিনের বাড়ি  মাগুরা সদরের চাপোল গ্রামে।

মঙ্গলবার (১৫ মে) দুপুরে ওই শিক্ষার্থীদেরসহ আলাউদ্দিনকে মাগুরা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে হাজির করা হয় । এ সময় বলাৎকারের শিকার এক শিক্ষার্থীর বাবা অভিযোগ করে বলেন, বেশ কিছুদিন ধরেই শিক্ষক আলাউদ্দিন মাঝে মধ্যেই গভীর রাতে এক এক জনকে নিজ ঘরে ডেকে নিয়ে তার ছেলেসহ অন্য শিক্ষার্থীদের বলাৎকার করে আসছিলো। এ সময় সে তাদের এই ঘটনা প্রকাশ করলে গলায় রক্ত উঠে মরে যাবে বলে ভয় দেখায়। কোমলমতি এসব শিশুরা এতোদিন ভয়ে কাউকে কিছু বলতেও সাহস করেনি।

গতরাতে এক শিক্ষার্থীকে নিজ ঘরে ডেকে নিয়ে গেলে মাদ্রাসার অপেক্ষাকৃত বড় কয়েকজন শিক্ষার্থীরা এ ঘটনা  দেখে ফেলে। এ সময় তাদের সন্দেহ হলে তারা স্থানীয় এলাকার মুরব্বিদের ডেকে আনলে তারা ওই শিক্ষককে হাতেনাতে আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দেয়।

এ ব্যাপারে তারা মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে জানান ওই শিক্ষার্থীর বাবা। 

এ ব্যাপারে মাগুরার পুলিশ ‍সুপার খান মোহাম্মদ রেজওয়ান জানান, অভিযুক্ত মাদ্রাসা শিক্ষককে মাগুরা সদর থানায় সোপর্দ করা হয়েছে। এ ঘটনায় তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ট্যাগ: banglanewspaper মাগুরা