banglanewspaper

ফেনী, ময়মনসিংহ ও বরিশালে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে তিনজন নিহত হয়েছেন। শনিবার দিনগত রাত দুইটা থেকে সাড়ে তিনটার মধ্যে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। নিহতরা মাদক ব্যবসা এবং চোরা কারবারির সঙ্গে জড়িত বলে দাবি করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

নিহতরা হলেন- ফেনীর ছাগলনাইয়া উপজেলার পাঠাননগর ইউনিয়নের পাঠান গড় গ্রামের আব্দুস ছালামের ছেলে আলমগীর হোসেন ভূইয়া (৩৩), ময়মনসিংহ শহরের মাসকান্দা এলাকার রিয়াজুল ইসলাম বিপ্লব (৪০) ও বরিশালের সদর উপজেলার শায়েস্থাবাদ এলাকার অজ্ঞাত যুবক।

পুলিশের দাবি, নিহতরা মাদক বিক্রেতা ছিলেন। তাদের বিরুদ্ধে ডাকাতি ও মাদক আইনে একাধিক মামলা রয়েছে।

বরিশাল
ব‌রিশাল মেট্রোপ‌লিটন পু‌লিশের কাউ‌নিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুরুল ইসলাম জানান, কয়েক‌দিন আগে  শায়েস্তাবাদ ইউ‌নিয়নের দ‌ক্ষিণ চরআইচা গ্রামের আব্দুল হক হাওলাদারের বা‌ড়িতে ডাকা‌তি হয়। এ ঘটনায় কাউনিয়া থানায় এক‌টি মামলার তদন্ত করছে মহানগর গোয়েন্দা (ডি‌বি) পু‌লিশ।

শনিবার রাত সাড়ে ৩টার দিকে শায়েস্তাবাদ সংলগ্ন নদীতে আলো ‌দেখতে পেয়ে ডি‌বি পু‌লিশের এক‌টি টিমের সন্দেহ হয়। তারা কাছাকা‌ছি এগিয়ে গেলে ডাকাত সদস্যরা পু‌লিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। এতে ডি‌বি পু‌লিশের এসআই দেলোয়ার, কনস্টেবল র‌ফিক ও হা‌ফিজ আহত হন। পরে ডি‌বি পু‌লিশ পাল্টা গুলি চালায়। এক পর্যায়ে ডাকাত সদস্যরা পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থল থেকে অজ্ঞাত পরিচয় ওই যুবকের লাশ উদ্ধার করা হয়। যুবকটির বয়স ৪০ বছর হবে।ঘটনাস্থল থেকে ১টি পাইপগান, ১টি রামদা, ১টি চাপা‌তি ও ৮ রাউন্ড গু‌লির খা‌লি কার্তুজ উদ্ধার করা হয়েছে।

ময়মনসিংহ
জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আশিকুর রহমান জানান, নগরীর চরপাড়া ও মাসকান্দা গনশার মোড় এলাকায় কতিপয় মাদক ব্যবসায়ীরা মাদক ভাগাভাগি করছে এমন গোপন তথ্যের ভিত্তিতে মধ্যরাতে ডিবি পুলিশ ওই এলাকায় অভিযান চালায়। পুলিশ মাসকান্দা গনশার মোড় এলাকায় পৌঁছালে মাদক ব্যবসায়ীরা পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি বর্ষণ করলে পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছোড়ে। 

এক পর্যায়ে অন্যান্য মাদক ব্যবসায়ীরা পালিয়ে গেলে মাদক সম্রাট বিপ্লবকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক বিপ্লবকে মৃত ঘোষণা করে । এসময় ঘটনাস্থলে তল্লাশি চালিয়ে ২০০ গ্রাম হিরোইন, ২০০ পিস ইয়াবা, ‌তিন‌টি গু‌লির খোসা , ২ টি চাকু উদ্ধার করে পুলিশ। এঘটনায় পুলিশের কনস্টেবল রাশেদুল এবং কাওছার নামে দুজন পুলিশ সদস্য আহত হন। আহতরা পুলিশ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

ফেনী
ছাগলনাইয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এম মোর্শেদ পিপিএম জানান, মাদকের বড় একটি চালান রয়েছে-এমন তথ্যের ভিত্তিতে রাত ১টার দিকে  উপজেলার পাঠাননগর ইউনিয়নের পশ্চিম পাঠাননগর এলাকায় একটি মাদকের আস্তানায় অভিযান চালানো হয়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে মাদক বিক্রেতা আলমগীর ও তার দল এলোপাতাড়ি গুলি ছুড়তে থাকে। পুলিশও পাল্টা গুলি ছোড়ে। এক পর্যায়ে মাদক বিক্রেতারা পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থল থেকে আলমগীরকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে তাকে ফেনী আধুনিক সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি আরও জানান, ঘটনাস্থল থেকে একটি বন্দুক, ৩ রাউন্ড গুলি, ১০০ বোতল ফেনসিডিল ও ১ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে। নিহত আলমগীরের বিরুদ্ধে ছাগলনাইয়া থানায় বিভিন্ন অভিযোগে ৯টি মামলা রয়েছে। তিনি উপজেলার চিহ্নিত ইয়াবার ডিলার ও ফেনসিডিল ব্যবসায়ী ছিলেন। 

ট্যাগ: banglanewspaper বন্দুকযুদ্ধ