banglanewspaper

কেন্দুয়া (নেত্রকোণা) প্রতিনিধি: কেন্দুয়ায় নেয়ামত বিবি মাজারের খাদেমের ঘর পুড়িয়ে দিয়েছে দুর্বৃত্ত্বরা। এ নিয়ে এলাকায় চাপা উত্তেজনা বিরাজ করছে। এ ঘটনাটি ঘটেছে গত সোমবার রাতে।

জানা গেছে, কেন্দুয়া উপজেলার ঐতিহাসিক দর্শনীয় স্থান রোয়াইলবাড়ি পুরাকীর্তি। এই পুরাকীর্তিতে একটি রহস্যময় সুঙ্গ পথ রয়েছে। এই সুঙ্গ পথের পাশেই নিয়ামত বিবি মাজার। দেওয়ান ঈঁশা খার অমাত্য দেওয়ান মহিউজ্জালাল ছিলেন এই দুর্গের শেষ অধিপতি। আর তারই বংশের নিয়ামত বিবি ছিলেন ধার্মিক মহিয়সী মহিলা। তার নামে বহু বিষ্ময়কর ঘটনা এলাকার লোক মূখে আজও ফেরে।

তার মৃত্যুর পর থেকে স্থানীয়রা তার কবরস্থানকে দরগা (মাজার) বানিয়ে যুগ যুগ ধরে বিভিন্ন ধর্মীয় আচার-অনুষ্ঠান পরিচালনা করে আসছে। গত ১৩ মে সোমবার রাতে ওই মাজারের খাদেমের ঘর আগুন দিয়ে পুড়িয়ে ফেলে র্দুবৃত্তরা। এ নিয়ে এলাকাবাসী দুই ভাগে বিভক্ত হওয়ায় তাদের মাঝে চাপা উত্তেজনা বিরাজ করছে।

মাজার ভক্তরা অভিযোগ করে বলেন, মাজারের পাশেই বেফাক তত্ত্বাবধানে ও সৌদির অর্থায়নে একটি মসজিদ নির্মাণ করা হচ্ছে। এই মসজিদ নির্মাণ শুরু হওয়ার পর থেকেই মাজারের বিভিন্ন জিনিসপত্র খোয়া যাচ্ছে এবং দুই দফায় দান বাক্স ভেঙ্গে পেলেছে দুর্বৃত্তরা।

মাজার ভক্ত হাবিবুল্লাহ বলেন, আমার সাথে সম্প্রতি ওই মসজিদের ইমাম আনিস মিয়া মাজার সম্পর্কে নানা বিরূপ মন্তব্য করেছেন। হাবিবুল্লার বক্তব্যের বিষয়ে জানতে চাইলে মসজিদের ইমাম আনিস অস্বীকার করে বলেন, দুই দিন পরে পরে শুনি মাজারে বিভিন্ন জিনিস কে বা কারা ক্ষতি করেছে, ঘর কাইটা (কেটে) ফেলেছে,দান বাক্স ভেঙ্গে ফেলেছে। 

এব্যাপারে কেন্দুয়া উপজেলার পেমই তদন্ত কেন্দ্রে অফিসার ইনচার্জ ( তদন্ত) উজায়ের আল আদনান জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়েছিলাম প্রাথমিক ভাবে মনে হচ্ছে মাজার ও মসজিদ পন্থিদের মাঝে বিভাজন রয়েছে। তবে বিষয়টি আরো ক্ষতিয়ে দেখছি আমরা।

ট্যাগ: Banglanewspaper কেন্দুয়া