banglanewspaper

আলফাজ সরকার আকাশ, শ্রীপুর (গাজীপুর) : বায়েজীদ হাসান আড়াই বছরের এক শিশু, অসহায় হতদরিদ্র পরিবারের ছিল তাঁর জন্ম। আর অসচেতনতার অভাবেই শিশুটি অপুষ্টির শিকার হয়। এই বয়সেই জটিল অসুস্থ হয়ে বৃদ্ধের মত শারীরিক অববয় ধারন করে সে। পরিবারের লোকজন দিন আনে দিন খায় বিধায় শিশুটির পর্যাপ্ত চিকিৎসার ব্যবস্থা করতে পারেনি। দিন দিন মৃত্যুর দিকে এগিয়ে যাচ্ছিল শিশুটি। হয়ত স্বজনরা মৃত্যুকেই নিয়তি মেনে নিচ্ছিল।

অবশেষে গত ১৯ মে দৈনিক আমার সময় সহ কয়েকটি সংবাদমাধ্যমে “বায়েজীদ কি পারবে স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে” শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশ হয়। সংবাদটি দৃষ্টিগোচর হলে ড্যাবের যুগ্ন মহাসচিব ও এনাম মেডিকেল কলেজের অধ্যাপক ডা: রফিকুল ইসলাম বাচ্চু শিশুটিকে রোববার সকালে তাঁর নিজ বাড়ি থেকে নিয়ে গিয়ে রাজধানীর শিশু হাসপাতালে ভর্তি করান। এসময় শিশুটি সুস্থ হওয়ার আগ পর্যন্ত তাঁর সমস্ত চিকিৎসার ব্যায়ভার নিজে গ্রহণ করবেন বলে জানান।

এ বিষয়ে ড্যাবের ( ডক্টর এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ) যুগ্ন মহাসচিব অধ্যাপক ডা: রফিকুল ইসলাম বাচ্চু সংবাদ মাধ্যমকে জানান, এ শিশুটির সংবাদ শোনার পর তাঁর জীবনবোধের নৈতিকতা থেকে তিনি শিশুটির চিকিৎসার ব্যবস্থা গ্রহন করেন। এই পরিবারটি সমাজের অবহেলিত একটি পরিবার, তাদের কথা ভেবে তিনি চিকিৎসার সকল ব্যয়ভারও গ্রহণের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

শিশু হাসপাতালের কনসালটেন্ট ডা: শাহজাহান জানান, শিশুটিকে চিকিৎসার জন্য শিশু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। হাসপাতালের সহযোগী অধ্যাপক সালাউদ্দিন বাবলুর অধিনে ৩য় তলার ৫ নং ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন আছে।

শিশু বায়েজীদ শ্রীপুর পৌর এলাকার লোহগাছ গ্রামের শফিকুল ইসলামের ছেলে। তাঁর বাবা স্থানীয় একটি বিদ্যালয়ের দপ্তরী ও মা একটি কারখানায় আয়ার কাজ করেন। তাঁদের বাস শ্রীপুর লোহাগাছ এলাকার রেলসড়কের জমির উপর স্থাপিত ছোট খুঁপরী ঘরে।
 

ট্যাগ: banglanewspaper শ্রীপুর