banglanewspaper

নিজস্ব প্রতিনিধি: গরুর মাংসের দামের সঙ্গে কলিজার দামের পার্থক্য দেখে চেইন সুপার শপ মীনা বাজারকে এক লাখ টাকা জরিমানা করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশের একটি ভ্রাম্যমাণ আদালত। অথচ সিটি করপোরেশন কলিজার দাম নির্ধারণ করে দেয়নি।

বুধবার দুপুরে মীনা বাজারের শান্তিনগর শাখাকে এই জরিমানা করেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি’র) ম্যাজিস্ট্রেট মশিউর রহমান।

ওই শাখায় গরুর মাংসের দাম সিটি করপোরেশনের নির্ধারিত ৪৫০ টাকাই ছিল। তবে কলিজার দাম ছিল ৫২৫ টাকা।

রোজা শুরুর চার দিন আগে ১৪ এপ্রিল নগরভবনে মাংস ব্যবসায়ীদের সঙ্গে এক বৈঠকে ১ থেকে ২৬ রোজা পর্যন্ত দেশি গরুর মাংস ৪৫০ টাকা, ভারতীয় গরু ও মহিষের মাংস ৪২০ টাকা নির্ধারণ করা হয়। তবে কলিজার দাম নির্ধারণ করা হয়নি।

সেদিন জানানো হয়, নির্ধারিত দামের চেয়ে বেশি টাকা নিলে সিটি করপোরেশন বা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর বা অন্য কোনো বাহিনীর ভ্রাম্যমাণ আদালত সাজা দেবে।

রোজা শুরুর পর থেকে সিটি করপোরেশনের পাশাপাশি র‌্যাব ও ডিএমপির নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটও ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করছেন।

মীনা বাজারে ডিএমপির ম্যাজিস্ট্রেট দাবি করেন, মাংসের দাম ৪৫০ হলে কলিজার দাম এর চেয়ে বেশি হতে পারে না। পরে তিনি জরিমানার আদেশ দেন।

মীনা বাজারের একজন বিক্রয়কর্মী বলেন, ‘আমরা কোথায় বেআইনি কাজ করলাম, সেটাই তো বুঝলাম না। কিন্তু ম্যাজিস্ট্রেট জরিমানা করেছেন। আমাদের আর কী করা আছে? তবে বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি।’

জানতে চাইলে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ম্যাজিস্ট্রেট সাজিদ আনোয়ার বলেন, ‘সিটি করপোরেশন গরুর মাংসের দাম নির্ধারণ করে দিয়েছে ৪৫০ টাকা। এর বেশি কেউ নিলে সেটা অপরাধ। সে ক্ষেত্রে আমরা ব্যবস্থা নেব। গরুর কলিজার দাম নির্ধারণ করা হয়নি। আমি এর বেশি কিছু বলতে পারব না। যিনি জরিমানা করেছেন, বাকিটা তাকেই জিজ্ঞেস করেন।’

তবে মীনা বাজারকে জরিমানা আদেশ দেয়া ডিএমপির ম্যাজিস্ট্রেট এ বিষয়ে কোনো কথাই বলতে রাজি নন। তাকে ফোন করা হলে তিনি ব্যস্ততার কথা জানিয়ে কথা বলতে চাননি। বলেন, ডিএমপির অনলাইন নিউজপোর্টালে এ বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য দেয়া আছে।

তবে ডিএমপি অনলাইন তাদের নানা অভিযানের সংবাদ প্রকাশ করলেও এই সংবাদটি সন্ধ্যা অবধি প্রকাশ করেনি। এই বিষয়টি জানাতে আবার মশিউর রহমানকে ফোন করা হলে তিনি কল ধরেননি।

ট্যাগ: Banglanewspaper বিনা কারণ মীনা বাজার জরিমানা