banglanewspaper

পিরোজপুর প্রতিনিধি: পিরোজপুর জেলার ইন্দুরকানী উপজেলায় এক নারীকে পিটিয়ে আহত করেছে করার অভিযোগ পাওয়া গেছে স্থানীয় এক ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে।

এ ঘটনায় আহত রেনু বেগম পিরোজপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে। বুধবার সন্ধ্যায় ইন্দুরকানী উপজেলার বালিপাড়া ইউনিয়নের পথেরহাট বাজারে এ ঘটনা ঘটে। 

আহত রেনু বেগম (৫০) ইন্দুরকানী উপজেলার বালিপাড়া ইউনিয়নের পথেরহাট এলাকার আব্দুল আজিজ হাওলাদারের স্ত্রী। আহত রেনু বেগমের জামাতা মো: মনির হাওলাদার জানান, তার শ্বাশুরীর নামে বালিপাড়া ইউনিয়নের পথেরহাট বাজারে বেশ কিছু সম্পত্তি আছে। বালিপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান কবির হোসেন বয়াতী বেশ কিছু দিন আগে তার শ্বাশুরী রেনু বেগমের কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা ধার নেয়।

কিন্তু ধারে টাকা ফেরত চাইলে পরে দিবে বলে ঘুরাতে থাকে। কিছু দিন আগে তার শ্বাশুরী পথেরহাট বাজারে তার একটি দোকান ২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকায় বিক্রি করে। এরপর থেকে বালিপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান কবির হোসেন বয়াতী রেনু বেগমের কাছ থেকে আবার ৫০ হাজার টাকা দাবী করে। এ টাকা দিতে না চাইলে বুধবার সন্ধ্যায় ইউপি চেয়ারম্যান কবির হোসেন বয়াতী রেনু বেগমকে লাঠি দিয়ে পিঠিয়ে আহত করে। 

পরে স্থানীয়রা ও আত্মীয়-স্বজনরা রেনু বেগমকে উদ্ধার করে পিরোজপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে আসে। 

অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে চেয়ারম্যান কবির হোসেন বয়াতী জানান, রেনু বেগমের কাছে কিছু লোক টাকা পাবে তা নিয়ে বুধবার সন্ধ্যায় পথেরহাট বাজারে হালকা মারামারির খবর শুনেছেন। কিন্তু তিনি কোন নারীকে মারধর করেনি। 

ট্যাগ: Banglanewspaper ইন্দুরকানী