banglanewspaper

বেনাপোল প্রতিনিধি : যশোরের বেনাপোল ও শার্শায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে একজন মারা গেছেন ও একজন আহত হয়েছেন। 

বেনাপোলের ভবেরবেড় গ্রামে শুক্রবার বিকাল সাড়ে ৩টায় বিদ্যুতের শকে লিটন হোসেন (৪০) নামে ২ সন্তানের জনক মারা গেছেন। তিনি বেনাপোল ভবেরবেড় ৬নং ওয়ার্ডের মৃত উজির আলীর ছেলে। 

স্থানীয়রা জানান, লিটন হোসেন তার নিজ বাড়িতে প্রতিদিন মটরে পানি তুলে গরুকে গোসল করান। শুক্রবার দুপুর সাড়ে ৩টার সময় তিনি দেখেন মটরের তার ছিড়ে গেছে। এসময় বিদ্যুৎ লাইন বন্ধ না করে তা ঠিক করার সময় শকে তিনি মারা যান। লিটন হোসেন অকালে মারা যাওয়ায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

এদিকে শার্শার শ্যামলাগাছি গ্রামে স্থাপিত পল্লী বিদ্যুতের পাওয়ার গ্রীডের স ালন লাইন ঠিক করার সময় বিল্লাল হোসেন (২৫) নামে এক নির্মাণ শ্রমিক গুরুতরভাবে আহত হয়েছেন। আহত বিল্লাল হোসেন কেশবপুর উপজেলার গনি হোসেনের ছেলে। 

জানা যায়, দুপুরে পল্লী বিদ্যুৎ পাওয়ার গ্রীডের থ্রি-ফেজ লাইন নির্মাণ কাজ করার জন্য সুপার ভাইজার কামরুজ্জামান নাভারণ পাওয়ার হাউজে দায়িত্বরত জামাত আলীকে দুই নম্বর ফিডার লাইন ও শার্শার এজি এম কমের কাছে চার নম্বর ফিডার লাইন বন্ধ করার জন্য বলেন। উক্ত লাইন দুটি বন্ধ নিশ্চিত জেনে নির্মাণ শ্রমিক বিল্লাল হোসেন কাজ শেষ করে। পরে সুপার ভাইজার কামরুজ্জামান এক নম্বর ফিডার লাইন বন্ধের অনুমতি না নিয়েই বিল্লাল হোসেনকে কাজ করার নির্দেশ দেন। এ সময় বিল্লাল তারে হাত দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে বুকের দুই পাশ ও হাত ঝলসে নিচে পড়ে যায়। সঙ্গীরা আহত বিল্লাল হোসেনকে উদ্ধার করে শার্শা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে  ভর্তি করেন। অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য যশোর সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ট্যাগ: banglanewspaper বেনাপোল