banglanewspaper

পিরোজপুর প্রতিনিধি: পিরোজপুরে পুলিশের সাথে পৃথক বন্দুক যুদ্ধে দুই জন মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছে। রবিবার মধ্যেরাতে নেছারাবাদ উপজেলায় অহিদুজ্জামান অহিদ ও মঠবাড়িয়া উপজেলায় মোঃ মিজান নিহত হয়।

এ ঘটনায় পুলিশের মঠবাড়িয়া থানার ওসি (তদন্ত ) সহ মোট ৬ জন পুলিশ আহত হয়। 

নিহত অহিদুজ্জামান নেছারাবাদ উপজেলার দক্ষিন কৌড়িখারা সোহাগদল গ্রামের মৃত: আব্দুর রহমান খানের ছেলে এবং মো ঃ মিজানের বাড়ি মঠবাড়িয়ার দাউদখালী ইউনিয়নে। অহিদের বিরুদ্ধে ৮ টি মাদক এবং একটি মামলায় ৭ বছরের দন্ড প্রপ্ত এবং মিজানের বিরুদ্ধেও একাধিক মাদক সহ বিভিন্ন মামলা রয়েছে। 

পিরোজপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জিএম আবুল কালাম আজাদ জানান, রবিবার দুপুরে অহিদুজ্জামান অহিদকে পিরোজপুরের কৃষ্ণনগর এলাকা থেকে আটক করে পুলিশ। তার বিরুদ্ধে মোট ৮ টি মামলা রয়েছে। এরপরে রাতে তাকে নিয়ে মাদক উদ্ধারের জন্য গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল কলাখালী ইউনিয়নের কৌবত্তখালী গ্রামে মাদক উদ্ধারের জন্য অভিযানে যায়।

সেখানে রাত আনুমানিক পোনে ১ টার দিকে অহিদকে তার সহযোগীরা পুলিশের কাছ থেকে ছিনিয়ে নেবার জন্য পুলিশকে লক্ষ করে হামলা চালালে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। এ সময়  দুই পুলিশ সদস্য আহত এবং অহিদ নিহত হয়। ঘটনাস্থল থেকে ১ টি পাইপগান, ২ টি রামদা, ৫ রাউন্ড বন্দুকের কার্তুজ ও ১৭৫ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে।

এছাড়া মঠবাড়িয়া থানার ওসি মো: গোলাম ছরোয়ার জানান, মঠবাড়িয়া উপজেলার বড় মাছুয়া ইউনিয়নে মোঃ মিজান নামে একজন মাদক ব্যবসায়ী পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছে। নিহত মিজানের বাড়ি উপজেলার দাউদখালী ইউনিয়নে লাল সর্দারের ছেলে।

এ ঘটনায় মঠবাড়িয়া থানার ওসি (তদন্ত) মাজাহারুল ইসলাম সহ ৪ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে বলে জানায় পুলিশ। ঘটনাস্থল থেকে দেড় কেজি গাঁজা, ৬০ পিস ইয়াবা ও দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে।

ট্যাগ: Banglanewspaper পিরোজপুর