banglanewspaper

জাহিদুল ইসলাম মেহেদী, বরগুনা প্রতিনিধি : বরগুনা জেলার আমতলী উপজেলার দক্ষিণ কাঠালিয়া গ্রামে জমিতে সাইন বোর্ড টানাতে গিয়ে সন্ত্রাসীদের হামলায় হাত-পা ভেঙ্গে গুরুতর আহত হয়েছে উত্তর রাওঘা গ্রামের মৃত্যু আলী আকবর মৃধার ছেলে মো. নজরুল ইসলাম মৃধা (৪৫) ও বরগুনা সদর উপজেলার কদমতলা গ্রামের সুলতান মাঝির ছেলে মো. শাহ আলম মাঝি (৫০)। আহত শাহ আলম মাঝিও নজরুল বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন ।

ঘটনাটি ঘটেছে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায়। স্থানীয় ও আহতদের পরিবার সূত্রে জানাগেছে, উপজেলার দক্ষিণ কাঠালিয়া গ্রামের কাঠালিয়া মৌজায় (আদালতের আদেশ) মতে জমির দাবিদার মো. শাহ আলম মাঝি বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার পূর্বে তিনি স্থানীয় নজরুল মৃধাকে সাথে নিয়ে জমিতে সাইন বোর্ড টানাতে যায়।

এতে বাঁধা দেয় স্থানীয় সামসু মুসুল্লী, সেরাজ মুসুল্লী, সোহরাব মুসুল্লী, আণোয়ার মুসুল্লী, শাহজাহান মুসুল্লী, হাফিজুর মুসুল্লী, বাবুল মুসুল্লী, বাদল মুসুল্লী, মনির মুসুল্লি, ফারুক মুসুল্লী, আশরাফ হাওলাদার, জুলহাস মুসুল্লী, জাহাঙ্গীর মুসুল্লী, জহিরুল মুসুল্লী, রাজ্জাক মুসুল্লীসহ একদল সন্ত্রাসীরা শাহ আলম মুসুল্লী ও নজরুল মৃধাকে সাইনবোর্ড টানাতে বাধা দেয় এবং দেশীয় অস্র ও লাঠি সোটা নিয়ে হামলা ও মারধোর করে আটক করে রাখে এবং শাহ আলম মাঝির পকেটে থাকা প্রায় দুই লক্ষাধিক টাকা ও জমিতে রাখা পাওয়ার পাম্প মেশিন, টিনসহ অন্যান্য মালামাল ছিনিয়ে নিয়ে যায় ।

স্থানীয়রা এ খবর আমতলী থানা পুলিশে দিলে আমতলী থানার এ এস আই আমিরুল ইসলাম, এ এস আই ফারুক, এ এস আই মিজান ঘটনা স্থলে গিয়ে আহত শাহ আলম মাঝি ও নজরুল মৃধা কে উদ্ধার করে। মারধোরে নজরুল ইসলাম মৃধার দুই পা ও শাহ আলম মাঝির বাম পা ও বাম হাত পিটিয়ে ভেঙ্গে ফেলেন সন্ত্রাসীরা । উল্লেখ্য উক্ত জমি নিয়ে দীর্ঘদিন যাবৎ আদালতে মামলা থাকার পর শাহ আলম মাঝি ছলেনামা বলে জমির মালিকানা প্রাপ্ত হন।

কাঠালিয়া মৌজার এই সম্পত্তি নিয়ে চাঁদা বাজিসহ একাধিক মামলার আসামীরা মামলার বাদী শাহ আলম মাঝি ও নজরুল মৃধা এ হামলা ও মারধোর করেছে বলে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন শাহ আলম মাঝি জানান।

এ ব্যাপারে সামসু মুসুল্লী গংদের কাছে জানতে চাইলে আবদুর রাজ্জাক মুসুল্লী বলেন, আমার রেকর্ডীয় জমিতে শাহ আলম মাঝি ও তার লোকজন জোড়পূর্বক সাইন বোর্ড টানাতে এসেছিল এই বলে তিনি মুঠোফোন কেটে দেন।

আমতলী থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ সহিদ উল্যাহ বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ পাঠিয়ে আহতদের উদ্ধার করে চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে। মামলার প্রস্তুতি চলছে । কঠোর আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।
 

ট্যাগ: banglanewspaper বরগুনা