banglanewspaper

বাংলাদেশের ক্রিকেটে সাকিব আল হাসানের অবদানের কথা নতুন করে বলার কিছু নেই। ব্যাটিং-বোলিং-ফিল্ডিং-অধিনায়কত্বের এমন চমৎকার ‘প্যাকেজ’ ক্রিকেট দুনিয়াতেই বিরল। তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচটি আজ মাঠে গড়াবে বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে আটটায়।

বাংলাদেশের টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক দীর্ঘ দিন তিন ফরম্যাটেই এক নম্বর অলরাউন্ডার ছিলেন। এখনও টেস্ট আর ওয়ানডেতে অলরাউন্ডার র‌্যাংকিংয়ে সাকিব শীর্ষে, আর টি-টোয়েন্টিতে তিন নম্বরে। আর সেই টি-টোয়েন্টির সৌজন্যে তার সামনে দুর্দান্ত অর্জনের হাতছানি।

তবে দুশ্চিন্তার বিষয় হলো, আফগানিস্তানের বিপক্ষে এই সিরিজ শুরুর আগেই যেন নিজেদের খোলসবন্দী করে ফেলেছে বাংলাদেশ। আফগানরা টি-টোয়েন্টি র্যাংকিংয়ে এগিয়ে, তাদের দলে বেশ কয়েকজন ভালো খেলোয়াড় আছে-এমন নানা নেতিবাচক চিন্তায় যেন বুঁদ হয়ে আছে টাইগার দল।

একমাত্র প্রস্তুতি ম্যাচে সেই নেতিবাচকতার প্রভাবটা ভালোভাবেই দেখা গেল। মাত্র কদিন আগে টেস্ট স্ট্যাটাস পাওয়া দলটির কাছে ৮ উইকেটের বড় ব্যবধানে নাস্তানাবুদ হলো সাকিব-মুশফিক-মাহমুদউল্লাহর মতো অভিজ্ঞদের নিয়ে গড়া বাংলাদেশ।

টি-টোয়েন্টি র্যাংকিংয়ে আফগানিস্তান আট নাম্বারে। বাংলাদেশের অবস্থান দশম। সত্য অস্বীকার করার উপায় নেই। কিন্তু অভিজ্ঞতার বিচারে কি আফগানদের থেকে পিছিয়ে আছে টাইগাররা? টেস্ট আঙিনায় প্রায় ১৮ বছর কাটিয়ে ফেলা একটি দল নবীশ আফগানিস্তানকে যখন ভাবনার চেয়ে বেশি সমীহ করে ফেলে, তখন সাকিব আল হাসানদের এই অভিজ্ঞতার ঝুলিটা শূন্যই মনে হয়।

পরিসংখ্যানই তো বাংলাদেশকে সাহস দেয়ার জন্য যথেষ্ট। আফগানিস্তানের বিপক্ষে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে মাত্র একবারই মুখোমুখি হয়েছে টাইগাররা। ম্যাচটি ছিল ঢাকায় ২০১৪ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম রাউন্ডে। সেখানে আফগানদের ৯ উইকেটের বড় ব্যবধানে উড়িয়ে দিয়েছিল মুশফিকুর রহীমের নেতৃত্বাধীন দলটি।

 

ট্যাগ: banglanewspaper বাংলাদেশ আফগানিস্তান