banglanewspaper

মো:মোজাম্মেল ভূইয়া,আখাউড়া(ব্রাহ্মণবাড়িয়া)প্রতিনিধি: আখাউড়ায় মাদক নির্মুল করতে এবার পুলিশের সাথে মাঠে নেমেছেন জনগন। মনিয়ন্দ ইউনিয়নকে মাদক মুক্ত করতে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান কামাল ভুইয়ার সভাপতিত্বে কর্মমট বাজারে রোববার বিকালে জনসভা হয়। আখাউড়া থানার ওসিসহ ইউনিয়নের সর্বস্তরের মানুষ জনসভায় উপস্থিত ছিলেন।

মনিয়ন্দ ইউনিয়নকে মাদক মুক্ত করতে পুলিশের সাথে স্থানীয় জনগণ মাদক বিরোধী অভিযানে অংশগ্রহন করবে বলে জনসভায় ঘোষনা দেয়া হয়। মনিয়ন্দের কোথাও মাদক ব্যবসায়ীর স্থান হবে না, মাদক ব্যবসায়ীকে দেখামাত্র ধরে এনে পুলিশের হাতে তুলে দেয়ার ঘোষনা দেয়া হয় এই জনসভায়।
স্থানীয় মনিয়ন্দ ইউপি চেয়ারম্যান মো: কামাল ভুইয়া জানান, জনসভার সীদ্ধান্ত অনুযায়ী এলাকার যুবক ও শিক্ষকসহ সর্বস্তরের জনগণ মাদকের বিরুদ্ধে কাজ করবে। ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে মাদক বিরোধী কমিটি গঠন করে দেয়া হয়েছে। মাদক নির্মুলে পুলিশের সাথে জনগণও রোববার থেকে মাঠে নামবে। কোথাও মাদক ব্যবসায়ীকে দেখা গেলে ধরে এনে পুলিশে সোর্পদ করা হবে। স্থানে স্থানে মাদকের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলা হবে।

তিনি আরো বলেছেন, মনিয়ন্দ ইউনিয়নে আর কোন মাদক ব্যবসায়ীর স্থান হবে না। প্রয়োজনে তাদের ঘরবাড়ি ঘেরাও করবে জনগণ।

তিনি আরো বলেছেন, মনিয়ন্দ ইউনিয়নকে আজ থেকে মাদক মুক্ত ঘোষনা করা হল। মাদক ব্যবসার সাথে যারা জড়িত তারা পুলিশের ভয়ে আত্মগোপন করলেও এলাকায় ঘাপটি মেরে আছেন। তাদের কাউকে ছাড় দেয়া হবে না।

এ ব্যাপারে আখউড়া থানার ওসি তদন্ত আরিফুল আমিন জানান, মাদকের বিরুদ্ধে জিহাদ ঘোষনা করা হয়েছে। মাদকের সাথে জড়িত কাউকে ছাড় দেয়া হবে না। মাদক ব্যবসায়ীর করুণ পরিণত হবে।

এ ব্যাপারে আখাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোশারফ হোসেন তরফদার জানান, মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি নিয়ে কাজ করছে পুলিশ। মাদক ব্যবসায়ী কাউকে ছাড় দেয়া হবে না। আখাউড়া উপজেলা থেকে মাদক নির্মুল করতে পুলিশ বিশেষ অভিযানের পাশাপাশি গ্রামের গ্রামে বৈঠক করছে।
তিনি আরো বলেছেন, মনিয়ন্দের কর্মমট বাজারে সর্বস্তরের মানুষ মাদকের বিরুদ্ধে পুলিশের পাশে থাকার অঙ্গীকার করেছে। মনিয়ন্দকে মাদক মুক্ত করতে স্থানীয় জনগণ পুলিশকে সর্ব ধরণের সহায়তা করবে বলে ঘোষনা দিয়েছে।

তিনি বলেছেন, মাদক ব্যবসায়ীরা আত্মগোপন করেও পুলিশের হাত থেকে বাচতে পারবে না।

ট্যাগ: banglanewspaper আখাউড়া