banglanewspaper

নিজস্ব প্রতিনিধি: আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের ওবায়দুল কাদেরের কর্মকান্ড ও কথাবার্তা নিয়ে ক্ষিপ্ত দলটির নেতাকর্মীরা। ঢাকা মহানগর দক্ষিণ সেচ্ছাসেবকলীগের কার্যনির্বাহী সদস্য এ আর বি ইসলাম তার ফেসবুকে একটি স্টাটার্স দিয়েছেন। 

বুধবার নিজের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে সাম্প্রতিক বেশ কিছু মন্তব্য নিয়ে সমালোচনা করেন এই নেতা। 

ফেসবুক পোস্টে তিনি লিখেছেন, ‘আমরা রাজনীতি করি, কারোও চাকরি করি না। সত্যকে সত্য বলার সাহস রাখি। চট্টগ্রাম নগর ছাত্রলীগের ত্যাগী নেতা নুরুল আজিম রনি জেলে। কিন্তু প্রধানমন্ত্রীকে প্রকাশ্যে হুমকি গিয়াসউদ্দিন কাদের (গিকা) আগাম জামিনে রয়েছেন।’

তিনি আরো লিখেছেন, ‘টেকনাফের জয় বাংলার যোদ্ধা যুবলীগের সভাপতি ও টানা তিনবারের কমিশনারকে বউ বাচ্চাকে শুনিয়ে বন্দুকযুদ্ধ। আর যেই যুদ্ধে স্থানীয় ইয়াবা গডফাদাররা ও বিএনপি জামায়াত শরিকরা জড়িত হয়েছিল। আমার প্রিয় নেতা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন ইয়াবা গডফাদার বদি তার প্রমাণ কি? এ রকম বদি বাংলাদেশে হাজার হাজার আছে। এমনকি তিনি বললেন, এতো বড় অভিযানে ২/১ টা ভুল হতেই পারে। অত:পর বদি সেফ জোনে। সেতুমন্ত্রী আপনার এই মন্তব্যের ফলে মাদক বিরোধী কর্মসূচি আজ প্রশ্নবিদ্ধ। কেন আজকে মাদক বিরোধী কর্মসূচি প্রশ্নবিদ্ধ হবে, যেই কর্মসূচিকে বাংলাদেশের সকল শ্রেনির মানুষ স্বাগতম জানায়। মনে বড় ভয় হয় বিএনপি জামাতের কেউ আপনাকে মিসগাইড করছে না তো? করলে সাবধান হয়ে যান।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে তিনি লিখেছেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী মানবতার মা দেশরত্ন জননেত্রী আমরা যারা মুজিব আদর্শের কর্মী আমরা ভীত। না আমরা আমাদেরকে নিয়ে না ভীত না। আমাদের ক্ষতি হলে ১৬ কোটি মানুষের কোন ক্ষতি হবে না। আমরা ভীত আপনাকে নিয়ে। আপনার কোন ক্ষতি হলে বাংলার ১৬ কোটি মানুষের ক্ষতি হবে। অর্থলোভী মানুষ অর্থের জন্য যে কোন কিছু করতে পারে। মীর জাফর নবাবের কাছের ছিল, মোস্তাক জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর খুব কাছের ছিল। মীর জাফর আর মোস্তাক তো প্রতিবেশি। তাই তাদের প্রতিবেশির উপর বিশেষ নজর রাখুন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আপনি বলেছিলেন, ‘ত্যাগীরা অভিমানি হয়, বেইমানরা না। আর বেইমানরাই চাটুকার হয়, অভিমানি না।’

জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু।

ট্যাগ: Banglanewspaper ওবায়দুল কাদের সেচ্ছাসেবকলীগ