banglanewspaper

ফেসবুক লাইভে এসে নিজের বেঁচে থাকার সত্যতা প্রমাণ দিলেন জনপ্রিয় বর্ষীয়ান অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামান।

সোমবার রাতে হঠাৎ তার মৃত্যুর গুজব ছড়িয়ে যায়। একটি স্বনামধন্য টিভি চ্যানেলসহ বেশ কয়েকটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলে তার মৃত্যুর খবর প্রচার করা হয়। নিজের কানে নিজের মৃত্যুর গুজব শুনে বেশ রাগান্বিত হন গুণী এই অভিনেতা।

শেষ পর্যন্ত সমস্ত কিছুকে গুজব প্রমাণ করে দিয়ে রাতে লাইভে আসেন, ৩৪ সেকেন্ডের লাইভ ভিডিওতে তিনি এক বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলের প্রতি নিজের ক্ষোভ প্রকাশ করেন। এসময় তিনি নিজের বাসার একটি টেলিফোন নাম্বার দিয়ে বলেন, টিভি চ্যানেলটি চাইলে এই নাম্বার ফোন করে অন্তত একটিবার সংবাদের সত্যতা যাচাই করতে পারতো।

জনপ্রিয় এই অভিনেতার পরিবারের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, তিনি ভালো আছেন। বাসাতেই আছেন। তার পরিবারের একজন সদস্য বলেন, ‌‌‘আমরা যারা সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে খবর ছড়াই, তাদের সচেতন হওয়া জরুরি। এমন খবর ছড়ানো উচিৎ নয়। একজন মানুষের মৃত্যুর খবর কিভাবে মজার বিষয় হতে পারে?’ তা আমাদের বোধগম্য নয়।

এটিএম শামসুজ্জামান বাংলাদেশের বর্ষীয়ান কাহিনীকার, সংলাপ রচয়িতা, চিত্রনাট্যকার, চলচ্চিত্র পরিচালক এবং অভিনেতা। সহকারী পরিচালক হিসেবে যাত্রা শুরু করে লেখক হিসেবে সুনাম অর্জন শেষে অভিনয়ে স্থায়ী হন এ টি এম শামসুজ্জামান।

উল্লেখ্য, টিএম শামসুজ্জামান ১৯৪১ সালের ১০ সেপ্টেম্বর নোয়াখালীর ভোলাকোট গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। অভিনয়ের জন্য তিনি পাঁচবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন। শিল্পকলায় অবদানের জন্য ২০১৫ সালে পেয়েছেন রাষ্ট্রীয় সর্বোচ্চ সম্মাননা একুশে পদক অর্জন করেছেন।

ট্যাগ: bdnewshour24 এটিএম শামসুজ্জামান এটিএম