banglanewspaper

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, ‘জেলকোড অনুযায়ী বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য পরীক্ষার সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা নিয়েছে সরকার। বিএনপি চাইলে খালেদা জিয়াকে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) নেওয়া হবে। সিএমএইচকে অগ্রাহ্য করার কোনো সুযোগ নেই। কারণ সবচেয়ে সমৃদ্ধ হাসপাতাল এটি।’

মঙ্গলবার (১২ জুন) সচিবালয়ে নিজ কার্যালয়ে খালেদা জিয়ার ছোট ভাই শামীম ইস্কানদারের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘কারাগারের সিভিল সার্জনসহ অন্যান্য চিকিৎসক যারা আছেন, তাদের পরামর্শ অনুযায়ী খালেদা জিয়াকে চিকিৎসা দেওয়া হবে। তার ব্যক্তিগত ও বিশ্বস্ত চিকিৎসক যারা আছেন, তাদেরকে অনুরোধ জানাবো, তারা যেন সরকারের এই চিকিৎসার সময়ে থাকেন।’

আবেদনপত্রে খালেদা জিয়ার ছোট ভাই লিখেছেন- ‘বর্তমানে আমার বড় বোন খালেদা জিয়াকে ঢাকাস্থ নাজিমউদ্দিন রোডে অবস্থিত কেন্দ্রীয় কারাগারে রাখা হয়েছে। তিনি দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন অসুখে আক্রান্ত। কারা অভ্যন্তরে তিনি প্রয়োজনীয় চিকিৎসার সুযোগ পাচ্ছেন না। ফলে দীর্ঘ কারাবাসে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়েছে।’

আবেদনপত্রে আরও বলা হয়, ‘গত ৯ জুন কারা কর্তৃপক্ষের অনুমতি সাপেক্ষে চারজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক কারা অভ্যন্তরে তার (খালেদা জিয়া) শারীরিক পরীক্ষা-নিরীক্ষা করেন। উক্ত চিকিৎসকরা জানেয়েছেন যে, খালেদা জিয়া গত ৫ জুন ‘মাইল্ড স্ট্রোকে’ আক্রান্ত হন। ফলে ভবিষ্যতের জন্য এ ধরনের বিষয় বড় ধরনের ঝুঁকির পূর্বাভাস বহন করছে। তাকে অনতিবিলম্বে ঢাকার ‘ইউনাইটেড হাসপাতালে’ ভর্তি করে প্রয়োজনীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও চিকিৎসা প্রদান করা জরুরি। তাই খালেদা জিয়ার এ ধরনের সব চিকিৎসা ব্যয় আমরা নিজ/পারিবারিকভাবে বহন করবো।’

‘এ কারণে খালেদা জিয়াকে ঢাকার ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি করে প্রয়োজনীয় উন্নত চিকিৎসা প্রদানের অনুমতির জন্য অনুরোধ জানাচ্ছি।’ বলে আবেদন পত্রে উল্লেখ করা হয়।

ট্যাগ: banglanewspaper স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী