banglanewspaper

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বলেছেন, বন্যা দুর্গত মৌলভীবাজারসহ বৃহত্তর সিলেটের যে সব জায়গায় পানিবন্দি মানুষ কষ্টে আছে তাদের জানমাল রক্ষা করা আমাদের পবিত্র দায়িত্ব। যত দিন পর্যন্ত বন্যার্তদের দুঃখ-দুর্দশা ও কষ্ট লাঘব হবে না, তত দিন পর্যন্ত এ ত্রাণ দেওয়া অব্যাহত থাকবে। আমাদের ত্রাণের কোনো অভাব নাই। এলাকার মানুষের যে চাহিদা তার চেয়ে বেশি ত্রাণ দিতে সক্ষম হব।

আজ সোমবার দুপুরে মৌলভীবাজার সার্কিট হাউসে প্রশাসনসহ সব শ্রেণি-পেশার মানুষের সঙ্গে বৈঠক শেষে স্থানীয় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন মন্ত্রী।

পরে ত্রাণমন্ত্রী বন্যা দুর্গত এলাকা শহরের বড়হাট ও রাজনগর উপজেলার কদমহাটা এলাকা পরির্দশন করেন এবং দুর্গতদের মধ্যে ত্রাণ বিতরণ করেন।

ভারতের উত্তর ত্রিপুরায় উল্লেখযোগ্য বৃষ্টিপাত না হওয়ায় মৌলভীবাজারের কুলাউড়া, কমলগঞ্জ ও রাজনগর উপজেলায় বন্যা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হয়েছে। তবে মনু নদীর বারইকোনাতে প্রতিরক্ষা বাঁধের ভাঙন দিয়ে বন্যার পানি প্রবেশ করায় পৌর এলাকা এবং সদর উপজেলার মোস্তফাপুর ও কনকপুর ইউনিয়নের নিম্নাঞ্চলে পানি বৃদ্ধি পাচ্ছে। শহরের বড়হাট এলাকায় আটকেপড়া মানুষদের উদ্ধারে সেনাবাহিনীসহ স্থানীয় জনগণ কাজ চালিয়ে যাচ্ছে।

ট্যাগ: banglanewspaper মৌলভীবাজার