banglanewspaper

প্রশাসনসহ সবখানে আওয়ামী লীগ হওয়ার প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টির সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কাজী ফিরোজ রশিদ। একই সঙ্গে তিনি বলেছেন, এটি বন্ধ করা প্রয়োজন, তা না হলে সামনে মহাবিপদ হবে।

আজ মঙ্গলবার বিকেলে জাতীয় সংসদে বাজেটের ওপর আলোচনায় কাজী ফিরোজ রশিদ এসব কথা বলেন। তাছাড়া বিরোধী দলের এ সদস্য, বাজেটে ব্যাংকিং খাতে সুযোগ-সুবিধা দেওয়ায় অথর্মন্ত্রীর কড়া সমালোচনা করেন।

কাজী ফিরোজ রশিদ সংসদে বলেন, ‘আওয়ামী লীগের বাইরে এখন কাউকে এদেশের প্রশাসনে পাওয়া যাবে না। এত আওয়ামী লীগ কোথায় ছিল? কে তাদের আওয়ামী লীগ বানাইল? তাদের আওয়ামী লীগটা করল কে? প্রতিযোগিতা চলতেছে আওয়াম লীগ হওয়ার জন্য প্রশাসনে। কে কত বড় আওয়ামী লীগ- এটার জন্য গবেষণা চলতেছে।

কার নানার বাড়ির ধারে আওয়ামী লীগের বাড়ি ছিল, কার চাচার সাথে কার চাচির বিয়ে হয়ছিল, এ সমস্ত আওয়ামী লীগের খতিয়ান বাইর করতে হবে প্রশাসনে। প্রশাসনে এখন আর আওয়ামী লীগের বাইরে কাউকে পাওয়া যায় না। এটা ভালো দিক না, স্পিকার। রাতারাতি এত আওয়ামী লীগ হয়ে গেল? এখন আসল আওয়ামী লীগার, নকল আওয়ামী লীগার বাইর করা কঠিন হবে। এবং তাদের দাপট এত বেশি বেড়ে গেছে সাধারণ মানুষকে তারা তোয়াক্কা করে না।

রাস্তায় হাঁটা দিলে গাড়ি ধাক্কা দিলে কয় আমি আওয়ামী লীগ করি। পার্কে হাঁটবেন পাঁচজনের মধ্যে, কয় আমরা আওয়ামী লীগ করি, আপনি ভালো আছেন তো। স্লোগান একটাই। এই তোষামোদকারী, তেল মর্দনকারী এদের যদি শুদ্ধ অভিযান করে বের করা না হয় তবে সামনে একটা মহাবিপদ হবে।’

ট্যাগ: banglanewspaper আওয়ামী লীগে