banglanewspaper

প্রিয়

নীহারিকা,

সময় কথা বলে বিশ্বাসের।সময় কথা বলে ভালোবাসার।সময় কথা বলে কাউকে ঘৃণা করার।সময় কথা বলে কারো সাথে সময় কাটানো কিংবা কারো কাছ থেকে দূরে থাকার। সময় কথা বলে জন্ম কিংবা মৃত্যুর।সময় কথা বলে কাউকে পাওয়া কিংবা হারানোর।সময় কথা বলে অবিশ্বাসের।

নীহারিকা, তোমাকে আমি খুব বিশ্বাস করতাম,সে বিশ্বাস ছিলো অন্ধের মতো,অন্ধরা যেমন অন্ধকার ছাড়া আলো দেখতে পেতো না ঠিক তেমনি আমিও তোমাকে ছাড়া আমার চারিদিকে কিছু দেখতে পেতাম না। আসলে কাউকে অন্ধের মত বিশ্বাস করা ঠিক না, শুধু নিজের বাবা-মা কে ছাড়া। পৃথিবীতে বাবা-মা ছাড়া আজ পর্যন্ত আমি কোন বিশ্বস্ত লোক দেখিনি।

সুখ কিংবা দুঃখের কথাও বলে সময়।সময় বড় উপকারি,সময় বড় শত্রু। একটি মেয়ের মত, একটি মেয়ে যেমন একটি ছেলেকে ধোকা দিতে পারে একটি ছেলেকেউ তেমনি ভালোবাসতে পারে। তুমি অন্য একজন কে প্রচণ্ড ভালোবাসো সে কথা কিন্তু আগে বলনি। তুমি আমার সাথে ঘুরছো খাইছো,নিজ হাতে খাওয়াইছো,তাহলে কি দরকার ছিলো এইসব অভিনয়ের।

আমি যদি তোমাকে একটি মাত্র প্রশ্ন করি সেই প্রশ্নের উত্তর তুমি দিতে পারবেনা,আর আমার মাঝে শত প্রশ্ন আজো মাথার ভিতর উত্তেজিত হয়ে ঘুরে বেরাচ্ছে কিন্তু এই সবের কোন উত্তর পাবো না জানি, কে দিবে বলো কেউ দিবে না। কারণ এই সব প্রশ্ন শুধু তোমার-আর আমার সম্পর্কের। আমাকে তুমি পাগল বলতে,আমি মেনে নিতাম কারণ কি জানো?

-কারণ আমি তোমাকে পাগলের মত ভালোবাসতাম আর তুমি ও ভালোবাসতে আমাকে, কিন্তু তোমার সেই ভালোবাসা ছিলো আমার প্রতি সম্পূর্ণ মিথ্যা। তবে তোমার ব্যবহার, কথা বলার ধরন সবকিছু বলে দিতো তুমিও আমকে ভালোবাসতে। কিন্তু আজ বুঝতে পারছি সেই ধারণা আমার কাছে ভূল মনে হয়েছিলো।

তাই আমি মনে করি কি জানোঃ-

"বন্ধুত্ব সূচনাটা অজানা এক সত্য থেকে আর সূচনাটা মিথ্যা হলে তখন পরিণত হয় প্রেম কিংবা ভালোবাসায়"

ইতি

বোকারাম

 

লেখাঃ শাফিউল কায়েস

ট্যাগ: banglanewspaper নীহারিকা ভালোবাসার চিঠি