banglanewspaper

গুরুতর অসুস্থ আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও জনপ্রশাসনমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম। কাউকে ঠিকমতো চিনতে পারছেন না তিনি। এমনকি প্রিয়জনদেরও নয়।

রবিবার (২৪ জুন) দৈনিক যুগান্তরে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানা গেছে।

ময়মনসিংহ-৩ আসনের সংসদ সদস্য নাজিম উদ্দিন আহমেদের বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বৃহস্পতিবার সৈয়দ আশরাফুলকে দেখতে গেলে দীর্ঘসময় বসে থাকার পরও নাজিম উদ্দিনকে চিনতে পারছিলেন না তিনি।

নাজিম উদ্দিন জানান, সৈয়দ আশরাফের চিকিৎসার ব্যয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বহন করবেন বলে জানিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে তার চিকিৎসার ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য বলা হলেও এখন পর্যন্ত কার্যকর কোনো উদ্যোগ নেওয়া হয়নি।

নাজিম উদ্দিন আরও জানান, তিনি নিয়ম করে প্রতিদিনই সৈয়দ আশরাফকে দেখতে যান এবং সময় কাটান। তবে সুযোগ থাকা সত্ত্বেও স্বজনদের উদ্যোগহীনতায় বিদেশে নেওয়া যাচ্ছে না সৈয়দ আশরাফকে। 

১৬ জুন ঈদের দিন সৈয়দ আশরাফের সঙ্গে দেখা করতে যান কিশোরগঞ্জের একজন সংসদ সদস্য। তিনি জানান, নিকটাত্মীয়দেরও চিনতে পারছেন না সৈয়দ আশরাফ। কেউ দেখা করতে গেলে তিনি দীর্ঘ সময় চেয়ে থাকেন। চিনতে পারেন না। কথাও বলেন না।

গত বছরের ২৩ অক্টোবর স্ত্রী শীলা ঠাকুরের মৃত্যুর পরপরই শারীরিকভাবে নানা অসুস্থতা চেপে ধরে সৈয়দ আশরাফুলকে। সম্প্রতি তিনি ঘরের মধ্যে হাঁটাচলা করলেও সিঁড়ি ভেঙে বাসার নিচে নামতে পারছেন না। তার সেবাযত্নে একজন নার্স নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

সৈয়দ আশরাফের একমাত্র সন্তান কন্যা রীমা ঠাকুর লন্ডনের এইচএসবিসি ব্যাংকে কর্মরত। বাবার এই অসুস্থতার মাঝেও তিনি দেশে আসতে পারেননি।

ট্যাগ: banglanewspaper সৈয়দ আশরাফ