banglanewspaper

রাজধানীর অভিজাত এলাকা গুলশানের হলি আর্টিজান রেস্তোরাঁয় জঙ্গি হামলার ঘটনায় দায়ের করা মামলায় তদন্ত প্রতিবেদন জমা না পড়ায় তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের তারিখ পিছিয়ে আগামী ২৬ জুলাই দিন ধার্য করেছেন আদালত।

সোমবার (২৫ জুন) ঢাকা মহানগর হাকিম নুরুন্নাহার ইয়াসমিনের আদালতে প্রতিবেদন জমা না দেয়ায় এই আদেশ দেন। আজ এই মামলার প্রতিবেদন জমার তারিখ নির্ধারণ করেছিলেন আদালত। 

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের ১ জুলাই রাত পৌনে নয়টার দিকে ৮ থেকে ১০ জন অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী রাজধানীর অভিজাত হলি আর্টিজান রেস্তোরাঁয় অতর্কিত হামলা চালিয়ে ২০ জন বিদেশি নাগরিকসহ ৩০-৩৫ জন লোকজনকে জিম্মি করে। এরপর থেকে ৪ কিলোমিটার এলাকা আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা ঘিরে রাখে।

পরদিন (২ জুলাই) সকালে রেস্তোরাঁয় জিম্মিদের উদ্ধারে কমান্ডো অভিযান শুরু করে যৌথ বাহিনী। বিদেশি নাগরিকসহ মোট ১৩ জনকে জীবিত এবং মোট ২০ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এ ছাড়া সন্ত্রাসীদের সঙ্গে গোলাগুলিতে ডিবির সহকারী কমিশনার (এসি) রবিউল ইসলাম এবং বনানী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সালাউদ্দিন নিহত হন। এ ঘটনায় বাংলাদশে ২ দিনের শোক ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

নিহত ২০ জনের মধ্যে দু’জন বাংলাদেশি, একজন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত আমেরিকান, ৯ জন ইতালি, ৭ জন জাপানি ও একজন ভারতীয়। ২ বাংলাদেশি হলেন- ট্রান্সকম গ্রুপের চেয়ারম্যান লতিফুর রহমানের নাতি ফারাজ হোসেন, ডেএক্সওয়াই ইন্টারন্যাশনালের মানবসম্পদ বিভাগের পরিচালক ইশরাত আখন্দ। 

এছাড়া নিহত হন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত আমেরিকান অবিন্তা কবির। তিনি এলিগ্যান্ট কোম্পানির চেয়ারম্যান রুবা আহম্মেদের একমাত্র মেয়ে। অবিন্তা কবির ২০১৬ সালের ২৭ জুন বাংলাদেশে আসেন। নিহত ইতালি ৯ নাগরিক হলেন- আদেলে পুগলিসি, মারকো তোন্দা, ক্লদিয়া মারিয়া ডি’আন্তোনা, নাদিয়া বেনেদেত্তি, ভিনসেঞ্জো ডি’আলেস্ত্রো, মারিয়া রিভোলি, ক্রিস্তিয়ান রসি, ক্লদিয়া কাপেলি এবং সিমোনা মন্তি।

পরে হলি আর্টিজান হামলার ঘটনার দায় স্বীকার করেছে মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক আন্তর্জাতিক জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট (আইএস)। এই ধরনের অতর্কিত হামলা চালিয়ে জিম্মির ঘটনা বাংলাদেশে এটিই ছিল প্রথম।

এ ঘটনায় ৪ জুলাই নিহত ৫ জঙ্গিসহ অজ্ঞাতদের আসামি করে গুলশান থানায় সন্ত্রাস দমন আইনে একটি মামলা করা হয়। 
 

ট্যাগ: banglanewspaper হামলা হলি