banglanewspaper

মনির হোসেন জীবন, নিজস্ব প্রতিনিধি : দেশের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ সিটি করপোরেশন গাজীপুর সিটি করপোরেশনের নব নির্বাচিত মেয়র এ্যাডভোকেট মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম। 

শিল্পনগরী গাজীপুরের সাধারণ মানুষের আস্থার নাম জাহাঙ্গীর আলম। আর তার প্রতিফলন ঘটেছে দ্বিতীয় মেয়াদে গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে। বিপুল ভোটে জয়লাভ করেছেন তিনি। 

গাজীপুর সিটি মেয়র এ্যাডভোকেট মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলমের অনেক অজানা তথ্য রয়েছে যা অনেকেই জানে না। আসুন এক নজরে জেনে নেয়া যাক নগর পিতা মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলমের জীবনী।

ব্যক্তিগত তথ্যসমুহ:

নাম : মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম, পিতা মোঃ মিজানুর রহমান, মাতা মোসা. জায়েদা খাতুন স্থায়ী ঠিকানা : কানাইয়া, ওয়ার্ড নং-৩০, জয়দেবপুর, গাজীপুর মহানগর। জন্ম তারিখ : ৭ মে ১৯৭৯ খ্রীষ্টাব্দ। বৈবাহিক অবস্থা : বিবাহিত, ধর্ম : ইসলাম, জাতীয়তা : জন্মসূত্রে বাংলাদেশী

শিক্ষাগত যোগ্যতা:

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিনে এলএলবি এবং ভাওয়াল বদরে আলম সরকারী কলেজ থেকে স্নাতক ও মাস্টার্স ডিগ্রি অর্জন করেন। গ্রামের প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রাথমিক শিক্ষার হাতে খরি। একই গ্রামের মক্তব থেকে পবিত্র কোরআন ও হাদিস অধ্যয়ন রপ্ত করেন। চান্দনা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে কৃতিত্বের সাথে এসএসসি পাস করেন।

রাজনীতি:

মানবতার জননী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা নিজ মুখে ঘোষণার মাধ্যমে গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে লালিত পারিবারিক পরিবেশে বেড়ে উঠা। মামার হাত ধরে চান্দনা উচ্চ বিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি হিসাবে রাজনীতির হাতেখরি। ভাওয়াল বদরে আলম সরকারি কলেজ শাখা ছাত্রলীগের নির্বাচিত সাধারন সম্পাদক হিসাবে সফলভাবে দায়িত্ব পালন করেন।

বাংলাদেশ ছাত্রলীগ গাজীপুর জেলা শাখার সহ-সভাপতি, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সহ-সম্পাদক ও বাংলাদেশ ছাত্রীলীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সহ-সভাপতি হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

জনপ্রতিনিধিত্ব:

মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম গাজীপুর সদর ও টঙ্গী উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। পরে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেন।

দশ লক্ষাধিকেরও বেশী ভোটের ব্যবধানে তিনি বিজয়ী হন। তিনি পর পর তিন বার ভাওয়াল বদরে আলম সরকারী কলেজ ছাত্র সংসদের ভিপি ছিলেন।

সামাজিক যোগাযোগ ও প্রতিনিধিত্ব:

মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম গাজীপুর মহানগর ইমাম সমিতি ও বাংলাদেশ শ্রমিক ফেডারেশন গাজীপুর মহানগর (৩২টি সংগঠন) এর প্রধান উপদেষ্টা। গাজীপুর জেলা সমবায় ব্যাংক লিমিটেডের সাবেক সভাপতি।

গাজীপুর জেলা ক্রিড়া সংস্থার সাবেক সহ-সভাপতি। বাংলাদেশ অনলাইন মিডিয়া এসোসিয়েশন(বিওএমএ) এর সিনিয়র সহ-সভাপতি।

শিক্ষা উন্নয়ন ও পৃষ্ঠপোষকতায় অবদান:

জাহাঙ্গীর আলম শিক্ষা ফাউন্ডেশন’ এর প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান। প্রতিষ্ঠানটি গাজীপুর তথা দেশের মেধাবী ও সুবিধাবঞ্চিত শিক্ষার্থীদের নগদ আর্থিক সহায়তা, ল্যাপটপ, কম্পিউটার, যানবাহন, শিক্ষা উপকরণ দিয়ে সহায়তা করে থাকে।

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক এবং সড়ক যোগযোগ ও সেতুমন্ত্রী জননেতা মো: ওবায়দুল কাদের ৫০ হাজার শিক্ষার্থীর উপস্থিতিতে বিশাল মহাসমাবেশের মাধ্যমে ফাউন্ডেশনের কার্যক্রম শুভসূচনা করেন। বর্তমানে ফাউন্ডেশন থেকে ৫৫০জন শিক্ষার্থীর উচ্চ শিক্ষার সম্পূর্ণ ব্যয়ভার বহন করা হয়।

গাজীপুর মহানগর কেজি স্কুল এসোসিয়েশন (নিন্ম মাধ্যমিক ও মাধ্যমিক), খালেক স্মৃতি শিক্ষা ফাউন্ডেশন’ এর প্রধান উপদেষ্টা। গাজীপুর মহানগরে ৪৪টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের আজীবন দাতা সদস্য। ধীরাশ্রম সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের আজীবন দাতা সদস্য।

ব্যবসা:

ব্যবসায়ী হিসাবে জাহাঙ্গীর আলম অত্যন্ত সফলতার সাক্ষর রেখেছেন। তিনি অনারেবল টেক্সটাইল এন্ড কম্পোজিট লিমিটেড’ এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক। তাছাড়া জেড আলম অ্যাপারেলস প্রতিষ্ঠানর মাধ্যমে দীর্ঘ ২২ বছর যাবৎ অত্যন্ত সুনামের সাথে দেশের বাজারে ও বিদেশে তৈরী পোশাক ক্রয়-বিক্রয় করে।

তিনি একজন নিয়মিত আয়কর প্রদানকারী।

ট্যাগ: banglanewspaper জাহাঙ্গীর আলম