banglanewspaper

বাসে বসে প্রকাশ্যে হস্তমৈথুনের পরে এবার মেলার ভিড়ে মহিলার সঙ্গে অশালীন আচরণ। ফের এক প্রৌঢ়ের বিকৃত যৌনতার সাক্ষী থাকল বঙ্গবাসী।

গত মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে কলকাতা শহরের একটি বাসের মধ্যে এক তরুণীকে দেখে হস্তমৈথুন করে এক বৃদ্ধ। ওই কৌশলে সেই বৃদ্ধের কীর্তির ভিডিও রেকর্ড করে তা ফেসবুকে পোস্ট করেন ওই তরুণী। একই সঙ্গে ভিডিও সহ অভিযোগ করেন কলকাতা পুলিশের কাছে।

ফেসবুক মারফত অভিযোগ পেয়ে আসরে নামে কলকাতা পুলিশ। গ্রেফতার করা হয় অভিযুক্তকে। সেই ঘটনার রেশ এখনও কাটেনি। পার হয়নি একটি মাস। এরই মাঝে সামনে এল নয়া ভিডিও। সৌজন্যে আবার সেই সোশ্যাল মিডিয়া।

বুধবার রাতের দিকে ফেসবুকে একটি ভিডিও ভাইরাল হতে শুরু করে। যেখানে দেখা যাচ্ছে যে একটি মেলার ভিড়ে এক কিশোরী দাঁড়িয়ে রয়েছেন। তাঁর পিছনে দাঁড়িয়ে এক প্রৌঢ় অশালীন আচরণ করে চলেছে। ৩০ সেকেন্ডের ওই ভিডিও-টিতে দেখা গিয়েছে যে একবার নয়, ক্রমাগত নিজের কাজ চালিয়ে যাচ্ছে ওই ব্যক্তি। ভিডিও-র শেষের দিকে দেখা যায় ওই মেয়েটির সঙ্গে থাকা অভিভাবক স্থানীয় এক মহিলা পরিস্থিতি প্রতিকূল বুঝে মেয়েটিকে অন্যত্র সরিয়ে দিলেন। এবং এরপরেই কীর্তিমান লোকটি অন্যত্র চলে গেল।

তার ক্রিয়াকলাপ যে রেকর্ড করা হচ্ছে তা সম্ভবত আঁচ করতে পেরেছিল ওই ব্যক্তি। একাধিকবার মোবাইলের ক্যামেরার দিকে তাকে চোখ দিতে দেখা গিয়েছে। যদিও নিজের কামুক উত্তেজনা তারপরেও সে নিয়ন্ত্রণ করতে পারেনি। মেয়েটিকে অন্যত্র সরিয়ে দেওয়া পর্যন্ত বজায় রেখেছিলেন নিজের কীর্তি।

বুধবার রাত ১১টা নাগাদ ওই ভিডিও নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে পোস্ট করেন দীপ চট্টোপাধ্যায় নামের এক ব্যক্তি। ফেসবুকে দেওয়া তথ্য অনুসারে, পেশায় মেডিক্যাল রিপ্রেজেনটেটিভ দীপ বাবু হুগলী জেলার ব্যান্ডেলের বাসিন্দা। তিনি ওই ভিডিও পোস্ট করে ক্যাপশনে জানিয়ে দিয়েছেন যে ভিডিও-তে দেখতে পাওয়া ঘটনা চুঁচুড়া মাঠের মেলার। একই সঙ্গে তিনি আরও জানিয়েছেন যে ওই ভিডিও তিনি ক্যামেরাবন্দি করেননি, হোয়াটসঅ্যাপ থেকে পেয়েছেন।

এই ভিডিও ভাইরাল হতে খুব বেশি সময় নেয়নি। ঘণ্টা খানেক সময়ের মধ্যেই লক্ষাধিক লোক দেখে ফেলে ভিডিও-টি। ঝড় ওঠে তীব্র সমালোচনার। সেই সঙ্গে দাবি উঠেছে অভিযুক্তের শাস্তির। ফেসবুকের মাধ্যমেই অভিযোগ জানানো হয়েছে কলকাতা পুলিশ এবং পশ্চিমবঙ্গ পুলিশের কাছে।

ট্যাগ: banglanewspaper ভিডিও ভাইরাল