banglanewspaper

ফিজিক্স কেমিস্ট্রির যুগল সুত্রের ছত্র ছায়ায়
পৃথিবী হারায় দ্বেষ খুনোখুনি বেশ
আমি শুধু দেখি আর বারবার মাখি
হেঁটে পায়ে পার করি ইতিহাস
শকুন শুধু চারপাশে নেই বালিহাঁস।
চৈতে জলে খাবি খায় শ্রাবণ, সুলেমানী ঠোঁট
চিত হয়ে আকাশ, পান করে মেঘ, রাজ্য কোর্ট
চোখ বুজে অমীয় সুধা, দেখে সব
আমি শ্রাবণের গান গাই।

কুমারী মায়ের প্রথম কান্নায় ঝরে
ঝুরঝুরে রোদ্দুর তুলতুলে ব্যথা
বাতিঘরে ফোঁটে কদম, কলির কথা
নেই মন মানুষের চোখ শুধু শকুনের
সুযোগ পেয়ে ওরা লেখে অভিধান আর
আমি শ্রাবণের গান গাই।

ওই যে আষাঢ়ে মেঘের কুমারী মেয়ে
খিলখিলিয়ে হাসে ওই হৃদ আকাশে
ঝরাবে যৌবন খোয়াবে মৌ বন
তারপর কেটে যাবে ভরা মধু ফাল্গুন
কাঁদি নি আর কাঁদবে না কেউ, তাই
আমি শ্রাবণের গান গাই।

মানকচু খেয়ে মাসি সুন্দরী দাসী
বসন্ত হারায় ঘুমে
ধুকে ধুকে পার করে দিন, কাটে রাত
চলমান চাতকের আকুল আবেদন
দিনশেষে ফিরে আসে চেনা শহরে আর
আমি শ্রাবণের গান গাই।

 

 

ট্যাগ: banglanewspaper কবিতা