banglanewspaper

তথ্যপ্রযুক্তি আইনের মামলায় গ্রেপ্তার কোটা সংস্কার আন্দোলনের নেতা রাশেদ খানকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পাঁচ দিনের রিমান্ড চাইবে পুলিশ। সোমবার আদালতে তুলে তার রিমান্ডের আবেদন করা হবে।

ঢাকা মহানগর পুলিশের সাইবার ক্রাইমের অতিরিক্ত উপ কমিশনার নাজমুল ইসলাম এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, সোমবার রাশেদকে আদালতে তোলা হবে। এরপর শাহবাগ থানায় করা তথ্যপ্রযুক্তি আইনের একটি মামলায় তার পাঁচ দিনের রিমান্ড চাওয়া হবে।

সরকারি চাকরিতে কোটা ৫৬ শতাংশ থেকে ১০ শতাংশে নামিয়ে আনতে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের আন্দোলনের মুখে গত ১১ এপ্রিল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জানিয়েছেন কোটা থাকবে না। এরপর গত ২ মে এবং সবশেষ গত ২৭ জুন সংসদে একই কথা জানান প্রধানমন্ত্রী।

সরকার প্রধানের পক্ষ থেকে বারবার ঘোষণা আসলেও আন্দোলনকারীরা সম্প্রতি অস্থির হয়ে উঠেছে প্রজ্ঞাপনের দাবিতে। এর মধ্যে রাশেদ খাঁন সম্প্রতি ফেসবুকে এক ভিডিও বার্তায় শিক্ষার্থীদের বাড়ি থেকে ঢাকায় ফিরে আবার আন্দোলনে নামার আহ্বান জানান। তিনি তার বক্তব্যে বেশ কিছু জায়গায় আপত্তিকর শব্দও ব্যবহার করেন। বলেন, ‘দেশ তোমার বাপের না যে যা খুশি তাই বলবে।’

এরপর কর্মসূচি ঘোষণা করতে শনিবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে সংবাদ সম্মেলন ডাকে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ। কিন্তু সেখানে আগ মুহূর্তে হামলা চালায় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক নরুল হক নূরসহ সাত শিক্ষার্থীকে পেটায় তারা।

এর আগেই আত্মগোপনে যান রাশেদ খান। এর মধ্যে রবিবার তিনি তার ফেসবুক আইডি থেকে আবারও একটি ভিডিও বার্তা প্রচার করেন। এতে তিনি ভাসানটেক এলাকার একটি বাড়িতে থাকার কথা জানিয়ে বলেন, ডিবি পুলিশ তাকে তুলে নিয়ে যাচ্ছে। শিক্ষার্থীরা যেন রাস্তায় নেমে আসে। পরে রাশেদ ছাড়াও আরও দুইজনকে তুলে নেয়ার অভিযোগ উঠে গোয়েন্দাদের বিরুদ্ধে। অন্য দুজন হলেন- মাহফুজ খান ও সুমন কবীর। তারাও সংগঠনটির যুগ্ম আহ্বায়ক।

মিরপুর ১৪ নম্বরের ভাসানটেক বাজার এলাকার মজুমদার রোডের ১৪ নম্বর বাসা থেকে ডিবি পুলিশ তাদের তুলে নিয়ে যায় বলে স্বজন এবং সহপাঠীরা অভিযোগ করেন।ঢাকাটাইমস

পরে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ-ডিএমপির মিডিয়া শাখার উপ-কমিশনার মাসুদুর রহমান রাশেদকে তুলে নিয়ে যাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, ছাত্রলীগের আইন সম্পাদকের তথ্যপ্রযুক্তি আইনে করা মামলায় রাশেদ খানকে গ্রেপ্তার করেছে ডিবি।

যোগাযোগ করা হলে ছাত্রলীগের আইন সম্পাদক আল নাহিয়ান খান জয় বলেন, ২৭ জুন রাশেদ খান সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে লাইভে এসে দেওয়া এক বক্তব্যে দেশনেত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে কটুক্তি করেছেন। এই কারণে তার বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে।’

ট্যাগ: Banglanewspaper রাশেদের রিমান্ড পুলিশ