banglanewspaper

থাইল্যান্ডে টানা নয়দিন আটকে থাকার পর  এক ফুটবল দলের ১২ তরুণ খেলোয়াড় ও তাদের কোচের সন্ধান পাওয়া গেছে। তারা সবাই জীবিত ও নিরাপদ আছেন। গত ২৩ জুন চিয়াং রাই প্রদেশের একটি গুহায় প্রবেশের পর নিখোঁজ হয় তারা। খবর বিবিসি’র।

খবরে বলা হয়, সোমবার নিখোঁজ ফুটবল দল ও তাদের কোচের সন্ধান পাওয়া যায়। তবে সন্ধান পাওয়া গেলেও তাৎক্ষনিকভাবেই তাদের উদ্ধার করা সম্ভব হচ্ছে না। 

বিশেষজ্ঞদের বরাত দিয়ে দ্য গার্ডিয়ান জানিয়েছে, তাদের উদ্ধার করতে এক মাস সময়ও লেগে যেতে পারে। কেননা প্রতিনিয়ত পানি ও কাদার ক্রমবর্ধমান বৃদ্ধি উদ্ধারকারী দলের জন্য গুহায় প্রবেশ অসম্ভব করে তুলেছে। 

উদ্ধার সংশ্লিষ্টরা বলছেন, তাদের প্রত্যেককে ডুবসাঁতার শিখতে হবে অন্যথায় বন্যা শেষ না হওয়া পর্যন্ত প্রায় মাসখানেক গুহার ভেতর থাকতে হবে।

সোমবার রাতে ব্রিটিশ ও থাই ডুবুরি দল ফুটবল দলটির সন্ধান পায়। তাদের সন্ধানের পর থাইল্যান্ডের নৌবাহিনীর বিশেষ ফোর্স একটি ভিডিও ফুটেজ ফেসবুকে আপলোড করে। ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, টর্চ লাইটের আলোতে ফুটবল দলের সদস্যদের দেখা যাচ্ছে। তারা পানির মধ্যে উঁচু জায়গায় বসে আছে। তারা ডুবুরিদের সঙ্গে কথা বলছে।

নিখোঁজ ফুটবল দলের সদস্যরা ডুবুরিদের জানিয়েছে, তারা খুবই ক্ষুধার্ত। তারা ডুবুরিদলকে জিজ্ঞেস করেছে, কতদিন ধরে গুহার ভেতর রয়েছে, কবে গুহার ভেতর থেকে বাইরে বের হতে পারবে। তবে ডুবুরি দল তাদের আশ্বস্ত করেছে, তাদের অপেক্ষা করতে হবে এবং তাদের জন্য আরও লোক আসবে। প্রতি উত্তরে এক খুদে ফুটবলার বলেছে, ‘ওহ, আগামীকাল দেখা হবে।’

উদ্ধারকারীরা বলছেন, থাইল্যান্ডের থাম লুয়াং গুহা প্রত্যেক বছর বর্ষায় ভেসে যায়। সাধারণত সেপ্টেম্বর থেকে অক্টোবর পর্যন্ত এর স্থায়িত্ব থাকে। উদ্ধারকারী সদস্যদের মতে, গুহায় আটকা পড়া বাচ্চাদের এর আগে বের করতে হলে, অবশ্যই ডুবসাঁতার শিখতে হবে এবং দক্ষ হতে হবে।

ট্যাগ: banglanewspaper থাইল্যান্ড