banglanewspaper

আরিফুর রুবেল: নিজের বিয়ে মেনে না নেয়ায় নাটোরের বাগাতিপাড়ায় বৃদ্ধ পিতাকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ উঠেছে তার ছেলের বিরুদ্ধে। মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার দয়ারামপুর তালতলা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহত পিতা একেএম জহুরুল ইসলাম (৬৪) ওই গ্রামের মৃত হাসান আলীর ছেলে এবং অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক।

আহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, জহুরুল ইসলামের বড় ছেলে মিজানুর রহমান দীর্ঘদিন পূর্বে পরিবারের সদস্যদের মতের বিরুদ্ধে প্রেম করে বিয়ে করে। বিয়েটি মেনে নেয়ার জন্য পিতাসহ পরিবারকে প্রতিনিয়ত চাপ প্রয়োগ করে। কিন্তু পিতা তাতে রাজি হননি।

এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ হয়ে মিজানুর রহমান মঙ্গলবার নিজ বাড়িতে পিতাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে এবং তাড়া করে। ভয়ে প্রতিবেশি ওসমানের বাড়িতে আশ্রয় নিলে সেখানেই পিতাকে আক্রমন করে পিটিয়ে আহত করে ছেলে। এতে পিতা জহুরুল ইসলাম মাথায় আঘাতপ্রাপ্ত হয়ে এবং বামহাত ভেঙ্গে গুরুত্বর আহত হন।

ছোট ছেলের স্ত্রী হাবিবা খাতুন বাঁধা দিলে তাকেও মারপিট করে মিজান। ছোট ছেলে মাহাবুব আলম খবর পেয়ে তার পিতাকে উদ্ধার করে বাগাতিপাড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। অবস্থা গুরুত্বর হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত মিজানুর রহমানের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করেও পাওয়া যায়নি।

এ ব্যাপারে বাগাতিপাড়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই। তবে লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যাবস্থা নিব।

ট্যাগ: Banglanewspaper বাগাতিপাড়া পিতাকে পিটিয়ে