banglanewspaper

নিজস্ব প্রতিনিধি: অপরিষ্কার পরীক্ষাগারে রোগ নির্ণয় ও নোংরা পরিবেশের কারণে ইবনে সিনা হাসপাতালকে দুই লাখ টাকা জরিমানা করেছে র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত।

রাজধানীর ধানমন্ডি ১৫ নম্বরে অবস্থিত হাসপাতালটির শাখাটিতে এই জরিমানা করা হয়। বুধবার সন্ধ্যা থেকে রাত সাড়ে ৯টা পর্যন্ত চলে এই অভিযান।

অভিযান শেষে র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলম বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

ম্যাজিস্ট্রেট বলেন, ‘ইবনে সিনা হাসপাতালের মেডিকেল বোর্ড ডেভেলপমেন্ট ব্যবস্থা সুষ্ঠু ছিল না। এছাড়া ল্যাব টেস্টের পরিবেশ খুবই অপরিষ্কার ও নোংরা ছিল। তাদেরকে সতর্ক করা হয়েছে, অবস্থার পরিবর্তন না হলে এর পর বড় ধরনের জরিমানা করা হবে।’

এর আগে দুপুরে ধানমন্ডির জাপান বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশিপ হাসপাতালে গিয়ে অনুমোদহীন ওষুধ বিক্রি, অপারেশন থিয়েটারে নোংরা পরিবেশ, মেয়াদ উত্তীর্ণ ওষুধ ব্যবহারসহ বেশ কিছু অভিযোগে আট লাখ এবং নিয়ম বহির্ভূতভাবে রক্ত সঞ্চালন, অপারেশন থিয়েটারে অপরিচ্ছন্নতা এবং বিক্রয় নিষিদ্ধ ওষুধ থাকায় নর্দান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালকে ৬ লাখ টাকা জরিমানা করে আদালত।

গত কয়েক দিন ধরেই আদালতটি বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতালে অভিযান চালিয়ে আসছে। এতে রীতিমতো উদ্বেগজনক চিত্র পাওয়া যাচ্ছে। নামী রোগ নির্ণয় কেন্দ্র পপুলার ডায়াগনস্টিকস অ্যান্ড হাসপাতালে মেয়াদউত্তীর্ণ উপাদানে রোগ পরীক্ষার প্রমাণ পেয়ে তাদেরকে ২৫ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

একই অভিযোগে রাজধানীর মিরপুরের আলোক হাসপাতালকে সাড়ে ৭ লক্ষ টাকা জরিমানা করা হয়। অপারেশন থিয়েটারে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ ও সার্জিক্যাল সামগ্রী এবং ম্যালেরিয়ার পরীক্ষা বাদেই রক্ত সংগ্রহ করায় হাসপাতালটিকে আরও ১১ লক্ষ টাকা জরিমানা করা হয় এবং তাদের ডায়াগনস্টিক সেন্টার বন্ধ করে দেওয়া হয়।’

র‌্যাবের ম্যাজিস্ট্রেট জানান, তারা হাসপাতালগুলোর বিরুদ্ধে নানা সূত্রে নানা অভিযোগ পেয়ে এই অভিযান নামছেন। সব জায়গায় গিয়ে নিজেদেরকে সংশোধন হতে বলছেন। অন্যথায় আরও বড় অংকের জরিমানার পাশাপাশি হাসপাতাল বন্ধ করে দেয়ার কথা বলে আসছেন তিনি।

ট্যাগ: নোংরা ল্যাব রোগ পরীক্ষা ইবনে সিনাকে জরিমানা