banglanewspaper

বিয়ের আগে বর ও কনের রক্তে থ্যালাসেমিয়া বা মাদকের অস্তিত্ব আছে কিনা তা পরীক্ষা করে মেডিকেল সার্টিফিকেট দাখিলের নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৫ জুলাই) হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় অ্যাডভোকেট সৈয়দা শাহীন আরা লাইলীর পক্ষে রিটটি দায়ের করেন আইনজীবী একলাছ উদ্দিন ভূইয়া।

বিচারপতি আশফাকুল ইসলাম ও বিচারপতি মোহাম্মদ আলীর হাইকোর্ট বেঞ্চে রিটটির শুনানি হওয়ার কথা রয়েছে।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব, আইন সচিব, স্বাস্থ্য সচিব, পুলিশের আইজি, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালকসহ সাত জনকে রিটে বিবাদী করা হয়েছে।

রিটে বলা হয়েছে, থ্যালাসেমিয়া রোগে আক্রান্ত কোন ব্যক্তির সঙ্গে বিয়ে হলে তাদের অনাগত সন্তান বিকলাঙ্গ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এছাড়া, দেশে মাদকাসক্তের সংখ্যা প্রায় ৭০ লাখ। এর মধ্যে ৬৫ ভাগ তরুণ। বিবাহ বিচ্ছেদের অন্যতম কারণ এই মাদকাসক্তি। বিভিন্ন সিটি করপোরেশনের সালিশী পরিষদের তথ্য অনুযায়ী নারীদের অভিযোগের কারণ হচ্ছে পুরুষত্বহীনতা। হেরোইন, ইয়াবা, অ্যালকোহলসহ বিভিন্ন মাদক সেবনে পুরুষত্ব পুরোপুরি নষ্ট হয়ে যায়।

বর্তমানে বিয়ের কাবিননামার ৩ ও ৪ নং দফায় বর ও কনের জন্ম সনদের পাশাপাশি ১৭ নং দফায় ডাক্তারি সার্টিফিকেট বা ডোপ টেস্ট সার্টিফিকেট বাধ্যতামূলক করা হলে বর-কনের ভবিষ্যৎ সংসার এবং অনাগত সন্তানের জীবন রক্ষা পাবে বলে রিট আবেদনে বলা হয়েছে।

আইনজীবী একলাছ উদ্দিন ভূইয়া বলেন, সংবিধানের ২১ ও ৩২ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী নাগরিকের জীবন রক্ষায় রাষ্ট্রকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে। সে কারণে আদালতের কাছে নির্দেশনা চেয়ে রিটটি দায়ের করেছেন বলে জানান তিনি।

ট্যাগ: banglanewspaper রক্ত পরীক্ষা রক্ত