banglanewspaper

প্রত্যর্পণ চুক্তি থাকলেও জাকির নাইককে ভারতের হাতে তুলে দেওয়া হবে না বলে স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন মালেশিয়ার প্রধানমন্ত্রী। বিতর্কিত ইসলাম প্রচারক জাকির নাইককে দেশে ফেরাতে ২০১৬ সাল থেকে চেষ্টা চালাচ্ছে মোদী সরকার। সম্প্রতি সেব্যাপারে আশার আলো দেখা গেলেও তাতে জল পড়ল অচিরেই। 

দিন কয়েক আগে জানা যায়, মালেশিয়া থেকে দেশে ফিরেছেন জাকির নাইক। তাঁর বিরুদ্ধে ভারতে চরমপন্থায় উসকানি ও আর্থিক তছরূপের অভিযোগ রয়েছে। ঢাকা জঙ্গি হামলার পর জানা যায়, জাকিরের উসকানিমূলক ভাষণ শুনেই চরমপন্থায় উদ্বুদ্ধ হয়েছিল জঙ্গিরা। এর পরই জাকিকের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ করে ভারত সরকার। ততক্ষণে যদিও দেশ ছেড়ে আমিশাহিতে আশ্রয় নিয়েছেন জাকির। এর পর তাঁর পাসপোর্ট বাতিল করে বিদেশ মন্ত্রক। বিদেশ মন্ত্রকের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আদালতের দ্বারস্থ হয়েও স্বস্তি মেলেনি জাকিরের। এর পর মালেশিয়ায় স্থায়ী বাসিন্দা হিসাবে বসবাস শুরু করেন তিনি। 

মালেশিয়ার সংবাদপত্র মালয় মেইলে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুসারে, সেদেশের প্রধানমন্ত্রী মহাথির মহম্মদ জানিয়েছেন, 'মালেশিয়ার জন্য কোনও সমস্যা তৈরি করবেন না করলে জাকিরকে ভারতের হাতে তুলে দেবে না মালেশিয়া।' 

গত জানুয়ারিতে জাকিরকে ফেরত চেয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে মালেশিয়াকে চিঠি লেখে ভারতীয় বিদেশ মন্ত্রক। তার পর থেকেই বিদেশ মন্ত্রকের তরফে তত্পরতা চলছিল। সম্প্রতি সেই তত্পরতা চরমে ওঠে। বিদেশ মন্ত্রকের তরফে আশা প্রকাশ করা হয়, জাকিরকে ফিরিয়ে দেবে মালেশিয়া। 

ওদিকে টিভি চ্যানেলকে দেওয়া সাক্ষাত্কারে জাকির জানিয়েছেন, ভারতে তাঁর বিরুদ্ধে ভুয়ো মামলা চলছে। যতদিন না সেই মামলার ফয়সলা হয়, দেশে ফিরবেন না তিনি। 

 

ট্যাগ: banglanewspaper জাকির নাইক