banglanewspaper

শেখ রাকিবুল হাসান রবিন, জবি: গত ১ জুলাই থেকে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল বিভাগের ক্লাস শুরু হয়। এরপর থেকে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের ব্যানারে যে কোটা সংস্কার আন্দোলন চলে তার কেন্দ্রীয় কমিটির নির্দেশে অনেকবার আন্দোলনে মাঠে নামার জন্য আহ্‌বান জানান কেন্দ্রীয় নেতারা।

গত ৩০ জুন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পিটুনিতে আহত হন কোটা সংস্কার আন্দোলনের নেতা নুরুল ইসলাম নুর। এরপর অন্যান্য নেতারা বারবার করে তাদের ফেইসবুক গ্রুপে  সারাদেশে আন্দোলন ছাড়াও সকল বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্লাস পরীক্ষা বর্জনের নির্দেশ দেয়।

কিন্তু বেশীরভাগ পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্লাস পরীক্ষা সুষ্ঠু ভাবে চলতে দেখা যায়। ব্যাতিক্রম ছিলনা জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ও। এছাড়াও পাঁচ দিনের রিমান্ড শেষে আবারো দশ দিনের রিমান্ডে আছেন কোটা সংস্কার আন্দোলনের আহ্‌বায়ক রাশেদ খান। এছাড়াও প্রধান এই দুই নেতা না থাকায় নেতৃত্ব দিতে ব্যর্থ হচ্ছেন কেন্দ্রীয় কমিটির অন্যান্য নেতারা। কখনো কখনো আন্দোলনকারীদের মধ্যে দুই গ্রুপের দেখা মিলছে।

উল্লেখ্য, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের কোটা সংস্কার নেতা এ পি এম সুহেলের উপর হামলা হওয়ার পর ঈদের পর অত্র ক্যাম্পাসে আর কোনো কোটা সংস্কার আন্দোলন, মানববন্ধন, র‍্যালী কিংবা ক্লাস পরিক্ষা বর্জন দেখা যায়নি। 

ট্যাগ: bdnewshour24 জবি