banglanewspaper

এম.পলাশ শরীফ, বাগেরহাট: বাগেরহাটে বোর্ডের সিদ্ধান্ত উপেক্ষা করে নিজস্ব শিক্ষকদের তৈরি প্রশ্নে পরীক্ষ নেয়ার অভিযোগ। বাগেরহাট সদর উপজেলার সাবেকডাঙ্গা গ্রামের মাহফুজা খানম মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ে ৬ষ্ঠ থেকে ১০ শ্রেনি পর্যন্ত অর্ধবার্ষিক পরীক্ষায় নিজস্ব শিক্ষকদের করা প্রশ্নে এ পরীক্ষা নেয়া হয়।

এ বিষয়ে শিক্ষার্থী ও অবিভাবকদের মধ্যে ক্ষোভ ও অসন্তোষের সৃষ্টি হয়েছে। এ ঘটনায় বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে কারণ দর্শানো নোটিশ দিয়েছে জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ কামরুজ্জামান।

বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা জানান, অর্ধবার্ষিক পরীক্ষার জন্য বোর্ড থেকে অনলাইনে প্রশ্নপত্র পাঠানো হয়। কিন্তু আমাদের শিক্ষকরা সেই প্রশ্নে পরীক্ষা না নিয়ে স্যারদের তৈরি করা প্রশ্নে পরীক্ষা নিয়েছে। আমরা চাই অন্যান্য স্কুলে যেভাবে বোর্ডের প্রশ্নে পরীক্ষা নেয়, সেভাবে আমাদেরও পরীক্ষা নেয়া হোক।

নিজস্ব প্রশ্নে পরীক্ষা গ্রহনের কথা স্বীকার করে বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক শ্যাম কুমার পাল বলেন প্রধান শিক্ষক হাসিবুর রহমান মিয়া ছুটিতে কক্সবাজার রয়েছেন। তার নির্দেশে বিদ্যালয়ের খরচ কমাতে এ ব্যবস্থা করা হয়েছে। এছাড়া অনেক সময় ইন্টারনেটের ধীর গতি ও বোর্ডের সার্ভারে সমস্যা থাকার কারণে প্রশ্নপত্র নামাতে সমস্যা হয়।

তবে বিদ্যালয়ের কম্পিউটার শিক্ষক মোঃ নজরুল ইসলাম  ইন্টারনেটের ধীর গতি ও বোর্ডের সার্ভারে সমস্যার কথা অস্বীকার করে বলেন আমার দায়িত্ব প্রশ্ন ডাউনলোড করে স্যারদের দিয়েছি।

বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি এ্যাড. শেখ মোহাম্মাদ আলী বলেন, আমি অসুস্থ্য থাকার কারণে পরীক্ষার বিষয়ে খোজ খবর নিতে পারিনি। তবে বিদ্যালয়ে এ ধরণে ঘটনা ঘটে থাকলে তার দায়ভার ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষককে নিতে হবে। 

জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ কামরুজ্জামান বলেন শিক্ষকদের তৈরি প্রশ্নে পরীক্ষ নেয়ার বিষয়টি জানতে পেরে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে তাৎক্ষনিক বোর্ডের প্রশ্নে পরীক্ষা নেয়ার জন্য বলা হয়েছে। তারা মঙ্গলবার থেকে বোর্ডের প্রশ্নে পরীক্ষা গ্রহনের কথা জানিয়েছে। এর আগে কেন তারা নিজস্ব প্রশ্নে পরীক্ষা নিয়েছে তার কারণ দর্শানোর জন্য পত্র প্রেরণ করা হয়েছে।

ট্যাগ: bdnewshour24 বাগেরহাট