banglanewspaper

মনিরুল ইসলাম মনি: তদবির সংস্কৃতি মানুষের মেধাকে অকেজো করে দেয়। মানুষের কর্মশক্তিকে অলস বানিয়ে দেয়। তাই দক্ষ জনশক্তি গড়ার লক্ষে অবশ্যই তদবির সংস্কৃতি থেকে বেড়িয়ে আসতে হবে। আজ (১০ জুলাই) সকালে এনডিসি সচিবালয় হলরুমে এনএসডিসি ও বাসস আয়োজিত ‘দক্ষতা উন্নয়নে জনসচেতনতা সৃষ্টিতে সাংবাদিকদের ভূমিকা শীর্ষক কর্মশালা’ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন সরকারের তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। 

তিনি তদবিরের বিরুদ্ধে গণমাধ্যমকর্মীদের সোচ্চার হওয়ার আহবান জানিয়ে বলেন, চাকরির জন্য তদবির বাণিজ্য, পদোন্নতি বাণিজ্য ও বদলী বাণিজ্যের বিরুদ্ধে আপনাদের কলম চলতে থাকলে বাংলাদেশে অবশ্যই দক্ষ জনশক্তি তৈরী হবে।

মন্ত্রী বলেন, একটি গেজেট পাশ হতে সময় লেগেছে তিন বছর। আমরা সরকার সেই দায়ভার মাথায় নিয়েই দেশকে ত্বরান্বিত করে এগোনোর আপ্রাণ চেষ্টা করছি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দূরদর্শিতার পরিচয় দিয়েছেন। তিনি তার দক্ষতার মাধ্যমে দেশে সৃষ্ট সামরিক বিশৃঙ্খলা, অর্থনৈতিক অস্থিরতা তার একক নৈপূর্ণে কাটিয়ে উঠে আইনের সুশাসন ও শান্তি প্রতিষ্ঠা করে দেশকে করেছেন সমৃদ্ধশালী। তিনি বিশৃঙ্খলা কাটিয়ে দক্ষতা বৃদ্ধির জন্য কাজ করে যাচ্ছেন নিরলসভাবে।

দেশের উন্নয়নে দক্ষতার ভূমিকা তুলে ধরে মন্ত্রী বলেন, আমরা স্বল্পোন্নত দেশ থেকে একধাপ এগিয়ে মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হয়েছে। আরেক ধাপ এগোতে হলে দক্ষতার উন্নয়ন দরকার। আমাদের দেশের অদক্ষ শ্রমিককে আধাদক্ষ বা দক্ষ করে গড়ে তোলার জন্য এখন থেকেই কাজ শুরু করেছি।

গণমাধ্যমের সক্রিয় ভূমিকা ছাড়া দক্ষতার উন্নয়ন সম্ভব না উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, রাজনীতি ও অর্থনীতিতে সুশাসন নিশ্চিত করতে আপনাদের গঠনমূলক সমালোচনা দরকার। আপনারা এগুলো তুলে ধরবেন। 

দক্ষতা উন্নয়নে সংশ্লিষ্টদের উদ্দেশ্যে মন্ত্রী বলেন, আপনারা সাংবাদিকদের সমালোচনাকে ভয় পাবেন না। আপনারা ভুলগুলো শুধরে নিবেন। তথ্য বাতায়ন, তথ্য সৃষ্টি, নতুন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির সাথে সক্রিয়তা সৃষ্টি করবেন।

এনএসডিসি সচিবালয়ের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (অতিরিক্ত সচিব) এবিএম খোরশেদ আলমের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থার (বাসস) এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ। 

আলোচক হিসেবে আলোচনা করেন এনডিসি সচিবালয়ের উপপরিচালক নেপাল চন্দ্র কর্মকার, গণসাক্ষরতা অভিযানের উপপরিচালক তপন কুমার দাশ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. এ এস এম আসাদুজ্জামান। 

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন এনএসডিসি সচিবালয়ের উপপরিচালক মো. কামরুজ্জামান। কী-নোট পেপার উপস্থাপন করেন এনএসডিসি সচিবালয়ের পরিচালক (যুগ্মসচিব) মোহাম্মদ রেজাউল করিম।

অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন বাসস’র প্রধান প্রতিবেদক আশেকুন নবী চৌধুরী এবং সার্বিক ব্যবস্থাপনায় ছিলেন বাসস’র বিশেষ সংবাদদাতা মাহফুজা জেসমিন।
 

ট্যাগ: banglanewspaper তথ্যমন্ত্রী