banglanewspaper

মনির হোসেন জীবন, নিজস্ব প্রতিনিধি : পুলিশের বিশেষ শাখা (এসবি) ট্রেনিং স্কুলে কর্মরত পরিদর্শক মামুন ইমরান খান (৪০) এর হত্যাকান্ড নিয়ে আলোচনার ঝড় এখন সর্বত্ত। আর এ সময়ের মধ্যেই বের হলো চাঞ্চল্যকর তথ্য।

আলোচিত এ হত্যাকাণ্ডের তদন্তে নামে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। নিবিড় তদন্তের এক পর্যায়ে সন্দেহভাজন কয়েকজনকে আটক করে পুলিশ। আর তাদের জিজ্ঞাসাবাদে বেরিয়ে আসে চাঞ্চল্যকর সব তথ্য।

আটককৃতরা জানায়, পূর্বপরিচিত এক নারীর জন্মদিনের পার্টির কথা বলে গত ৮ই জুলাই রোববার মামুনকে বনানীর চেয়ারম্যান বাড়ি এলাকার একটি বাসায় ডেকে নেওয়া হয়। 

পরে পূর্বপরিচিত নারীর উপস্থিতিতে তার সহযোগীরা তর্কাতর্কির এক পর্যায়ে মামুনকে হত্যা করে। এরপর গাড়িতে করে মামুনের মরদেহ নিয়ে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা ঘুরে লাশ গুম করার চেষ্টা চালায় তারা। 

এতে ব্যর্থ হয়ে তারা গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলার রায়েরদিয়া এলাকার একটি জঙ্গলে এনে লাশের হাত-পা বেঁধে বস্তাবন্দি করে পুড়িয়ে ফেলে যায়। তার আগে এসিড দিয়ে পুড়িয়ে তার চেহারা বিকৃত করা হয়। 

তিন দিন পর গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে মামুনের মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। আর এ ঘটনায় জড়িত এক নারীকে যশোর সীমান্ত হয়ে দেশের বাইরে পালানোর সময় আটক করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশের বিভিন্ন সূত্র।

ট্যাগ: banglanewspaper মামুন